সুদেষ্ণা মন্ডল :: সংবাদ প্রবাহ :: নরেন্দ্রপুর :: “চোরের সাত দিন আর গৃহস্থের একদিন” । আর এই প্রবাদ সত্যি    হলো । বেশ কিছুদিন ধরে এলাকার বিভিন্ন এ.টি.এম থেকে অভিনব কায়দায় প্রতারণা করে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছিল এক   ব্যক্তি । এই খবর পাওয়ার পর নড়েচড়ে বসে বারুইপুর পুলিশ জেলার বড় কর্তারা । এর পরেই ফরতাবাদ এলাকা থেকে ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে নরেন্দ্রপুর থানার পুলিশ

বারুইপুর পুলিশ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইন্দ্রজিৎ বসু জানান , গড়িয়া এলাকার বিভিন্ন এ.টি.এম কাউন্টারের সামনে সন্দেহজনকভাবে ঘোরাঘুরি করতে দেখে ঈশাক আলী নামে ওই ব্যক্তিকে সন্দেহ হয় পুলিশের । তাকে আটক করে উদ্ধার হয় পরচুলা, লোহার বিশেষ পাত , চুম্বক, স্ক্রু-ড্রাইভার, আঠা লাগানো টেপ ।

তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে বিভিন্ন এ.টি.এম কাউন্টারে টাকা বেরনোর মুখে ওই লোহার বিশেষ পাত লাগিয়ে রাখত। কেউ কাউন্টার থেকে টাকা তুললে তার টাকা মুখে এসে আটকে যেত। টাকা না পেয়ে গ্রাহক কাউন্টার ছাড়লেই অভিযুক্ত ঢুকে টাকা বেরানোর মুখ থেকে পাত খুলে খুলে টাকা বের করে নিত।

বেশ কয়েকবছর ধরে এই কাজ করছিল সে । তার বাড়ি বারাসাত এলাকায়। এর পর তাকে গ্রেফতার করা হয় । অভিযুক্তকে শনিবার বারুইপুর আদালতে তোলা হবে । আদালতে তোলা হলে তাকে সাত দিনের জন্য পুলিশ রিমান্ডের আবেদন জানানো হবে।