কুমার মাধব :: সংবাদ প্রবাহ :: মালদা :: আবার আবাস যোজনা টাকা প্রতারণা করে মারধর করে জোরপূর্বক উপভোক্তার কাছ থেকে উঠিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠল শাসকদলের পঞ্চায়েত সদস্যা ও তার স্বামীর বিরুদ্ধে। মালদহের হরিশ্চন্দ্রপুর থানা এলাকার দৌলতপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের ইলাম গ্রামের ঘটনা। এই গ্রামের বাসিন্দা ৭০ বছরের কালু শেখের নামে আবাস যোজনার ঘর এসেছিল।

অভিযোগ এলাকার পঞ্চায়েত সদস্যা মর্জিনা খাতুনের নেতৃত্বে তার স্বামী সুলতান আলী আরো কয়েকজন লোক কালু শেখ নামক ওই ৭০ বছরের বৃদ্ধকে ঘরে আটকে জোর করে, মারধর করে ফিংগারপ্রিন্ট নিয়ে তার অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা তুলে নেওয়া হয় বলে অভিযোগ। এমনকি এর আগেও এই বৃদ্ধের কাছ থেকে দফায় দফায় টাকা নেওয়া হয় বলে অভিযোগ ওই পঞ্চায়েত সদস্যা ও তার স্বামীর বিরুদ্ধে।

এমনকি ওই বৃদ্ধ টাকা তোলার জন্য ফিঙ্গারপ্রিন্ট দিতে অস্বীকার করলেও অমানবিক ভাবে মারধর করা হয় বলেও দাবি এই বৃদ্ধের। ওই ৭০ বছরের বৃদ্ধ কালু শেখ এ বিষয়ে হরিশ্চন্দ্রপুর ২ নম্বর ব্লকের বিডিও সহ হরিশ্চন্দ্রপুর থানা আইসির কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন। ঘটনার জেরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে হরিশ্চন্দ্রপুর থানা এলাকা জুড়ে। যদিও পুরো ঘটনা স্বীকার করে নিয়েছে ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস। অন্যদিকে আবাস যোজনার কাটমানি নিয়ে এমন অমানবিক চিত্র সামনের আসায় সরব হয়েছে এলাকার বিজেপি নেতৃত্ব।যদিও এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে মুখ খুলতে চাননি অভিযুক্ত গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্যা মর্জিনা খাতুন ও তার স্বামী সুলতান আলী।

এ বিষয়ে নম্বর ব্লকের তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক জুবেদ আলী জানান মাননীয় মুখ্যমন্ত্রীর আবাস যোজনা সহ যে কোন রকম প্রকল্পে কারো কাছ থেকে টাকা নেওয়া যাবে না। এ বিষয়ে দলীয় কেউ যুক্ত থাকলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। শুনতে পেয়েছি দৌলতপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের এক মেম্বারের বিরুদ্ধে এমন এক অভিযোগ উঠেছে। দলের এর তরফ থেকে এ বিষয়ে খতিয়ে দেখা হবে।

ঘটনার জেরে সুর চড়িয়েছে জেলা বিজেপি নেতৃত্ব। বিজেপির জেলা সাধারণ সম্পাদক কিষান কেডিয়া জানান শাসকদলের বিরুদ্ধে এর আগেও আবাস যোজনার টাকায় কাটমানির অভিযোগ উঠেছে। এটা কোনো নতুন ঘটনা নয়। দলটাই দুর্নীতি পরায়ন। মানুষকে ভাওতা দিয়ে বিভিন্ন প্রকল্প সামনে এনে সেই টাকা পার্টির পকেট এ ঢুকেছে। মানুষ সব কিছু বুঝতে পারছে। এর জবাব আগামী পঞ্চায়েত নির্বাচনে দেবে।

হরিশ্চন্দ্রপুর থানার আইসি সঞ্জয় কুমার দাস জানান অভিযোগ জমা পড়েছে, পুরো ঘটনাটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।হরিশ্চন্দ্রপুর ২ নম্বর ব্লক বিডিও বিজয় গিরি জানান অভিযোগ পেয়েছি, অভিযোগকারীর কাছে পুরো বিষয়টি শুনেছি,খতিয়ে দেখে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here