আমন্ত্রণ করে মুখ্যমন্ত্রীকে অপমান করা হলো – বিক্ষব্ধ মমতা বক্তব্য রাখলেন না !

আনন্দ মুখোপাধ্যায় :: সংবাদ প্রবাহ টিভি :: ২৩শে জানুয়ারি :: কলকাতা ::

অপমানিত মুখ্যমন্ত্রী 

 

 

ভিক্টরিয়া মেমোরিয়ালে নেতাজী সুভাষ চন্দ্র বসুর ১২৫ তম জন্ম জয়ন্তী অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের ভাষণের সময় একদল অবাঞ্চিত আচমকাই জয় শ্রীরাম সোগান তোলেন । ছন্দপতন হয় গোটা অনুষ্ঠানের । মমতা তাঁর বক্তৃতা অসমাপ্ত রেখেই বসে যান ।

মুখ্যমন্ত্রী পরিষ্কার বললেন, আমন্ত্রণ করে কাউকে অপমান করা উচিত নয়। তাঁর ভাষণের সময় এমন ঘটনায় জোর শোরগোল পড়ে গিয়েছে।এদিন বিকেলে সঞ্চালক মুখ্যমন্ত্রীকে বক্তব্য রাখার জন্য আমন্ত্রণ জানান। তখনই ভিক্টোরিয়া চত্বরজুড়ে ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি ওঠে। অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অনেকেই ‘অতি উৎসাহী’ মানুষদের থামানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু, তাতে খুব বেশি লাভ হয়নি।

সঞ্চালকও আবেদন জানান, ‘আপনারা সবাই শান্ত হন।’ অনুরোধ করেন, ‘এই শুভক্ষণে মুখ্যমন্ত্রীকে কিছু বলার অবকাশ দিন।’ ঘটনায় স্বাভাবিক ভাবেই বিরক্ত হন মুখ্যমন্ত্রী। বলেন, ‘সরকারি অনুষ্ঠানের মর্যাদা রক্ষা করা উচিত। এটি কোনও রাজনৈতিক দলের অনুষ্ঠান নয়। আমি প্রধানমন্ত্রী এবং সংস্কৃতি মন্ত্রকের কাছে কলকাতায় এই অনুষ্ঠান রাখার জন্য কৃতজ্ঞ। কিন্তু, কাউকে ডেকে অপমান করা অশোভন।’

দৃশ্যতই ক্ষুব্ধ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘এর প্রতিবাদে আমি বক্তব্যই রাখব না।’ এরপরই পোডিয়াম ছেড়ে নিজের জায়গায় ফিরে যান তিনি। যাওয়ার আগে দিয়ে গিয়েছেন ‘জয় হিন্দ, জয় বাংলা’ স্লোগান। স্বভাবতই এই ঘটনা নিয়ে যে আগামী দিনে রাজ্যের রাজনীতি আবর্তিত হবে তা বলাই বাহুল্য ।

মোটের ওপর নেতাজির আবেগ বাঙালির হৃদয় জুড়ে আছে, আর তাঁরই ১২৫ তম জন্মজয়ন্তীতে স্বয়ং প্রধানমন্ত্রীর সামনে পার্টি ক্যাডারদের এই অসংযত আচরণ প্রধান মন্ত্রীকেই অসম্মান করার শামিল । যে প্রধানমন্ত্রী সর্বদাই গুড গভর্ণেন্সের কথা বলে থাকেন তিনি সামনে দাঁড়িয়ে বাংলার মানুষের সামনে কি দৃষ্টান্ত রাখলেন তা এবার বাংলার মানুষের ভাবার সময় এসেছে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

seventeen + 12 =