নিউজ ডেস্ক :: সংবাদ প্রবাহ :: নয়াদিল্লি :: আবারো আদালত চত্বরে গুলীর ঘটনা ঘটেছে। দিল্লীর রোহিণী কোর্টের পর এবার গুলি চালানো হয়েছে উত্তরপ্রদেশের একটি নিম্ন আদালতে। গতকাল সোমবার উত্তরপ্রদেশের শাহজাহানপুর জেলা আদালতে কোর্ট শুরুর কিছু সময় পরেই হঠাৎই হামলা চালায় এক দুষ্কৃতিকারী। জানা গেছে, ওই দুষ্কৃতকারীর লক্ষ্য ছিলেন এক আইনজীবী। সেই মতো ওই আইনজীবীকে লক্ষ্য করেই গুলি করা হয়। তার ফলে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় ভূপেন্দ্র সিংহ নামে ওই আইনজীবীর।

প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, শাহজাহানপুর জেলা আদালতের তৃতীয় তলায় এক ব্যক্তির সাথে কথা বলছিলেন ওই আইনজীবী। সেই সময়ই হঠাৎ চিৎকার করে মেঝেতে লুটিয়ে পড়েন তিনি। কিছুক্ষণের মধ্যেই তার মৃত্যু হয়। পরে মৃতদেহের সামনে থেকে একটি দেশীয় পিস্তল উদ্ধার করে পুলিশ।

এই বিষয়ে শাহজাহানপুরের পুলিশ সুপার জানান, এক ব্যক্তি একাই আদালত চত্বরে প্রবেশ করে গুলি চালায়। ওই ব্যক্তি ছাড়া ঘটনাস্থলের আশপাশে সন্দেহজনক কাউকে দেখা যায়নি। ফরেনসিক দল কাজ করছে। খুনের কারণ এখন পর্যন্ত জানা যায়নি।

এই ঘটনায় চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে আইনজীবী মহলে। ওই আদালতের এক বর্ষীয়ান আইনজীবী বলেন, ‘কীভাবে ঘটনাটি ঘটল তার বিস্তারিত জানি না। আমরা কোর্টের ভিতরে ছিলাম। তখনই হঠাৎ খবর পাই গুলিবিদ্ধ হয়েছেন এক ব্যক্তি। ঘটনাস্থলে এসে দেখতে পাই আমাদেরই এক আইনজীবীর দেহে গুলি লেগেছে। ওই ব্যক্তি আগে ব্যাংকে চাকরি করতেন। গত চার-পাঁচ বছর ধরে এখানে কাজ করছেন।’

গত এক মাসের ব্যবধানে ভারতের দু’টি নিম্ন আদালতে গুলি চলার ঘটনা ঘটল। এর আগে গত মাসে দিল্লির রোহিণী কোর্টে আইনজীবীর পোশাক পরে আদালত চত্বরে গুলি চালায় দুষ্কৃতিকারীরা। ওই ঘটনায় তিনজনের মৃত্যু হয়েছিল। এবার উত্তরপ্রদেশের নিম্ন আদালতে গুলি চালানোর ঘটনায় আদালতের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here