এই বছর করোনা পরিস্থিতিতে নেয়া হয়েছে নতুন পদক্ষেপ ড্রোনের মাধ্যমে পুণ্যার্থীদের স্নান করার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

সুদেষ্ণা মন্ডল :: সংবাদ প্রবাহ ::গঙ্গাসাগর :: করোনার চোখ রাঙানিকে উপেক্ষা করে শুরু হয়ে গিয়েছে গঙ্গাসাগর মেলা। করোনার সংক্রমণ রুখতে এই বছর গঙ্গাসাগর মেলায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে একাধিক কড়া পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। মাস্ক ছাড়া গঙ্গাসাগরের কোন পুণ্যার্থী কে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না। একত্রে ৫০ জনের বেশি পুণ্যার্থীদের সমুদ্র সৈকতে জমায়েত করতে দেয়া হচ্ছে না। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পুণ্যার্থীদের জন্য পুণ্যস্নানে বিশেষ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সমুদ্র তীরে তৈরি করা হয়েছে বেশ কয়েকটি অস্থায়ী ই- স্নানের কাউন্টার। এই কাউন্টার থেকেই পুণ্যার্থীরা পবিত্র গঙ্গা জল নিয়ে বিশ্বাসের সাথে পুণ্য স্নান করতে পারবে। গঙ্গাসাগরে বিভিন্ন প্রান্তে রাখা হয়েছে ড্রোনের মাধ্যমে স্নানের ব্যবস্থা।

করোনা মহামারীর মধ্যে সমুদ্র সৈকতের প্রায় কয়েক হাজার মানুষকে ই- স্নান ও ড্রোনের মাধ্যমে স্নান করানো হয়। গঙ্গাসাগরে পুণ্যার্থীদের জন্য সমুদ্রতীরে রাখা হয়েছে অত্যাধুনিক ড্রোন। এই অত্যাধুনিক ড্রোন গুলিতে প্রায় ১৫ লিটার গঙ্গা জল নিয়ে উড়ে যাওয়ার ক্ষমতা রয়েছে।

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে যে সকল পুণ্যার্থীরা ড্রোনের মাধ্যমে স্নান করতে ইচ্ছুক তাদেরকে করোনার স্বাস্থ্যবিধি মেনে সারিবদ্ধ ভাবে দাঁড় করানোর পর অত্যাধুনিক ড্রোন দিয়ে স্নান করানো হয়। সাগর বিডিও সুদীপ্ত মণ্ডল জানান, করোনা সংক্রমণ এড়াতে গঙ্গাসাগর মেলার জন্য একাধিক নতুন পদক্ষেপ নিয়েছে জেলা প্রশাসন। গতবছর ব্যাপকভাবে সাড়া ফেলেছিল ই- স্নান।

ই- স্নানের জনপ্রিয়তার কথা মাথায় রেখে এই বছর করোনা পরিস্থিতিতে নেয়া হয়েছে নতুন পদক্ষেপ ড্রোনের মাধ্যমে পুণ্যার্থীদের স্নান করার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। রাজ্যে করোনা পরিস্থিতি উদ্বেগজনক, রাজ্যে করো না পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে সাগরে বিভিন্ন প্রান্তে অত্যাধুনিক ড্রোনের ব্যবস্থা রেখেছে জেলা প্রশাসন। এই ড্রোন গুলির মাধ্যমে প্রতিনিয়ত পূণ্যার্থীদের পুণ্যস্নান করানো হবে।

এ বছরেই ড্রোনের মাধ্যমে পণ্য স্নান ব্যাপক জনপ্রিয় হয়েছে পুণ্যার্থীদের মধ্যে, কয়েকজন পুণ্যার্থী জানিয়েছে ড্রোনের মাধ্যমে পুণ্যস্নানের অনুভূতি, পুণ্যার্থীরা বলেন, এ যেন মা গঙ্গা আকাশ থেকে আমাদের পৃথিবীতে নেমে আসছে। যেমনভাবে মহাদেবের জটা থেকে মর্তে আগমন হয়েছিল মা গঙ্গার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *