স্পোর্টস ডেস্ক :: সংবাদ প্রবাহ :: কোলকাতা :: শনিবার সকালে শ্যামবাজার এলাকার উত্তর প্রান্তিক ক্লাবের মাঠে ফুটবল খেলতে নেমেছিল সুখদেব সাহা। বয়স ১৪। উল্টোডাঙার বাসিন্দা। স্থানীয় সূত্রে খবর, সাড়ে আটটা নাগাদ ওয়ার্ম আপ করতে নেমেছিল সুখদেব। কিছুটা দৌড়নোর পরই আচমকা মাঠে লুটিয়ে পড়ে সে। অভিযোগ, ওই অবস্থায় মাঠেই বেশ কিছুক্ষণ পড়েছিল সুখদেব। সঙ্গে সঙ্গে তার পরিবারকে খবর দেওয়া হয়নি বলেও অভিযোগ। পরে তাকে নিকটবর্তী আর জি কর হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে সুখদেবকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকেরা।

খবর পেয়ে ছুটে আসে সুখদেবের পরিবার সদস্যরা। তাঁদের অভিযোগ, বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু হয়েছে সুখদেবের। মাঠে অসুস্থ হয়ে পড়লেও দীর্ঘক্ষণ সেখানেই ফেলে রাখা হয়েছিল তাকে। পরে হাসপাতালে পাঠানো হয়। মৃত কিশোরের বাবা গৌতম সাহার দাবি, মাঠে চিকিৎসার উপযুক্ত পরিকাঠামোই ছিল না। তাই অকালে তাঁদের ছেলের মৃত্যু হল। তবে তিনি জানিয়েছেন, তাঁর ছেলে শারীরিকভাবে সম্পূর্ণ সুস্থ ছিল না।

এদিকে ক্লাবের তরফে পরিবারের অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে। তাঁদের দাবি, সুখদেব শারীরিকভাবে ‘ফিট’ ছিল না। এর আগেও কয়েকবার এমন ঘটনা ঘটেছে। এবারও সুখদেব পড়ে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তার বাবাকে খবর দেওয়া হয়। হাসপাতালে পাঠানো হয়েছিল সঙ্গে সঙ্গে। কোনও গাফিলতি ছিল না।