নিউজ ডেস্ক :: সংবাদ প্রবাহ :: নয়াদিল্লি ::  কৃষক আন্দোলনের মূল মঞ্চের পাশ থেকে উদ্ধার এক ব্যক্তির দেহ। খুনের পর হাত-পা কাটা অবস্থায় ওই ব্যক্তির দেহ পুলিশের ব্যারিকেডে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়। শুক্রবার সিংঘু  সীমানায় পুলিশ ওই ব্যক্তির মৃতদেহ উদ্ধার করেছে। এই ঘটনায় শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানউতোর। কৃষকদের মধ্যে ছড়িয়েছে তীব্র অসন্তোষ।

পুলিশ সূত্রে খবর, নিহতের বয়স ৩৫ বছর । শুক্রবার ভোর পাঁচটা নাগাদ দেহটি প্রথম দেখতে পাওয়া যায়। কুন্দলি থানার পুলিশ দেহটি উদ্ধার করে। স্থানীয় হাসপাতালে দেহটি ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, নৃশংসভাবে খুন করা হয়েছে ওই ব্যক্তিকে। নিহতের হাত কবজি থেকে কেটে নেওয়া হয়। শুধু তাই নয়, গোড়ালি থেকে কেটে নেওয়া হয়েছে একটি পায়ের পাতাও।

এদিকে, একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। ওই ভাইরাল ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, শিখদের নিহং সম্প্রদায়ের বেশ কয়েকজন নিহত ওই ব্যক্তিকে মারধর করছে। কেটে নেওয়া হয়েছে হাতের কবজিও। যন্ত্রণায় ছটফট করছেন তিনি। রক্তের মধ্যে ভাসছেন ওই যুবক। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে তুঙ্গে রাজনৈতিক চাপানউতোর। টুইটে রাকেশ টিকায়েতের বিরুদ্ধে একহাত নিয়েছেন অমিত মালব্য।