নিউজ ডেস্ক :: সংবাদ প্রবাহ :: কোলকাতা ::  কলকাতা হাইকোর্ট চত্বরে বুধবার সকালে আচমকা গুলির শব্দে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পরে জানা যায়, হাইকোর্টে কর্তব্যরত এক পুলিশ সদস্যের বন্দুক থেকেই ভুলবশত ওই গুলি বেরিয়ে গিয়েছিল।ঘটনাটি যখন ঘটে, তখন বিচারপতি ও আইনজীবীরা আদালতে এসে পৌঁছাননি। ওই ঘটনায় কোনো ক্ষতি হয়নি বলেও পুলিশ জানিয়েছে।হাইকোর্টে এজলাস শুরুর আগে নিরাপত্তা ও অন্য দায়িত্বে থাকা পুলিশ সদস্যরা কাজে যোগ দেন। প্রতিদিনের মতো বুধবারও তারা প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। এ সময় কয়েকজন পুলিশ কর্মী তাদের আগ্নেয়াস্ত্রে গুলি ভর্তি করছিলেন। তখনই হঠাৎ করে এক কনস্টেবলের এসএলআর রাইফেল থেকে গুলি বেরিয়ে যায়। ওই গুলিটি গিয়ে লাগে হাইকোর্ট থানার মালখানার ছাদে। ওই ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয় অন্য পুলিশ সদস্যদের মধ্যে।

উচ্চপদস্থ অফিসাররা তা জানতে পেরে তৎক্ষণাৎ ওই কনস্টেবলকে সেখান থেকে সরিয়ে দেন। তার পর থানায় নিয়ে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় ওই পুলিশ সদস্যকে। খতিয়ে দেখা হয় সিসিটিভি ফুটেজও। প্রাথমিকভাবে এটিকে নিছক দুর্ঘটনা বলে মনে করছেন লালবাজারের পুলিশ কর্মকর্তারা। তাদের মতে, বন্দুকে ঠিকমতো গুলি ভরা হয়েছে কিনা তা পরীক্ষা করতে গিয়েই ওই দুর্ঘটনাটি ঘটে। আপাতত ওই কনস্টেবলকে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। খতিয়ে দেখা হচ্ছে তার মানসিক অবস্থাও