গঙ্গাসাগরের পবিত্র গঙ্গা জল নিয়ে “পুণ্য তরী”পাড়ি দিলো ২৩ টি জেলার উদ্দেশ্যে।

সুদেষ্ণা মন্ডল :: সংবাদ প্রবাহ :: গঙ্গাসাগর :: গঙ্গাসাগরের পবিত্র গঙ্গা জল নিয়ে “পুণ্য তরী”পাড়ি দিলো ২৩ টি জেলার উদ্দেশ্যে। করোনা সংক্রমনের মধ্যেও শুরু হয়েছে গঙ্গাসাগর মেলা ২০২২। সোমবার মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলাশাসক পি. উলগনাথন। প্রতিবছর গঙ্গাসাগর মেলায় প্রায় কয়েক লক্ষ পুণ্যার্থীর সমাগম হয় কিন্তু এ বছর তার ব্যতিক্রম করোনা মহামারীর কালে পুণ্যার্থী আগমনে ভাটা পড়েছে।

প্রতিবছর নতুন নতুন ভাবনার মাধ্যমে পুণ্যার্থীদের চমকে দেয় দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা প্রশাসন। করোনা মহামারী কালে দীর্ঘ টালবাহানার পর কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে গঙ্গাসাগর মেলার অনুমতি মিলবে। দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এই বছর গঙ্গাসাগর মেলায় বিশেষ চমক হল “পুণ্য তরী”। গঙ্গাসাগরের পবিত্র “গঙ্গা জল” ২৩ নৌকার মাধ্যমে ২৩ টি জেলার বিভিন্ন মন্দিরে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে।

আজ গঙ্গাসাগরের কপিলমুনির মন্দিরে পুজো দেওয়া পর গঙ্গাসাগরের পবিত্র “গঙ্গা জল”জেলার বিভিন্ন প্রান্তে মন্দিরের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। ঐতিহাসিক এই প্রবিত্র অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলাশাসক পি. উলগানাথন, সুন্দরবন উন্নয়ন মন্ত্রী বঙ্কিমচন্দ্র হাজরা, সাগর ব্লকের বিডিও সুদীপ্ত মণ্ডল সহ একাধিক প্রশাসনিক আধিকারিকেরা।

জেলার কোন মন্দিরে থাকছে এই গঙ্গাসাগরের এই পবিত্র জল
১) আলিপুরদুয়ার জেলায় মহাকাল মন্দির ২) বাঁকুড়া জেলায় বিষ্ণুপুর মন্দির ৩) বীরভূম জেলায় তারাপীঠ মন্দির ৪) কোচবিহার জেলায় মদনমোহন মন্দির ৫) দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় বড়কালী মন্দির ৬) দার্জিলিং জেলায় দির্ধাম মন্দির ৭) হুগলি জেলায় তারকেশ্বর মন্দির ৮) হাওড়া জেলায় বেলুড় মঠ ৯) জলপাইগুড়ি জেলায় মার্কা পাড়া কালী মন্দির ১০) ঝাড়গ্রাম জেলায় কনক দুর্গা মন্দির, ১১) কালিংপং জেলায় মঙ্গলা ধাম প্রানামি মন্দির ১২) মালদা জেলায় রামকালী মন্দির ১৩) মুর্শিদাবাদ জেলায় কিরীটিশ্বরী মন্দির ১৪) নদীয়া জেলায় শিব নিবাস মন্দির ১৫) উত্তর 24 পরগনা জেলায় কচুয়া ধাম ১৬) পশ্চিম বর্ধমান জেলায় ঘাঘরবুড়ি ১৭) পূর্ব বর্ধমান জেলায় ১০৮ শিব মন্দির ১৮) পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায় মহামায়া মন্দির ১৯) পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় মুক্তিধাম ২০) পুরুলিয়া জয়চান্ডি পাহাড় ২১) উত্তর দিনাজপুর জেলায় ভৈরবী মন্দির ।

মকর সংক্রান্তির পূন্য লগ্নে পুণ্যার্থীরা জেলার এইসকল মন্দির থেকে গঙ্গাসাগরের পবিত্র গঙ্গা জল পাবে। পুণ্যার্থীরা “ভক্তি ও বিশ্বাসের” সাথে গঙ্গাসাগরের না এসেও গঙ্গাসাগরে পুণ্যস্নান করতে পারে নিজের জেলাতে। জেলা প্রশাসনের অভিনব উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছে বহু পুণ্যার্থীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three × two =