সুদেষ্ণা মন্ডল :: সংবাদ প্রবাহ ::গঙ্গাসাগর :: নতুন বছরের জানুয়ারি মাসে গঙ্গাসাগর মেলা । প্রতি বছরই মেলায় ভিন দেশ এবং রাজ্য থেকে বহু মানুষ আসেন। গঙ্গাসাগর মেলার প্রস্তুতি পর্ব খতিয়ে দেখতে খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গঙ্গাসাগর যাচ্ছেন। তার আগে সোমবার নবান্নে গঙ্গাসাগর মেলার প্রস্তুতি বৈঠক সারলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান,মেলায় আগত পর্যটকদের জন্য অতিরিক্ত বাস, ট্রেন চলবে।

তাঁদের সুযোগ-সুবিধা এবং কোভিডবিধিও নিয়েও খোঁজখবর নিলেন মুখ্যমন্ত্রী। একইসঙ্গে তাঁর বার্তা, এবার মেলা হবে প্লাস্টিক মুক্ত। এদিনের বৈঠকে উপস্থিত রেলের কর্তাদের সঙ্গে আলোচনার পর মুখ্যমন্ত্রী জানান, হাওড়া এবং শিয়ালদহ-নামখানায় অতিরিক্ত ট্রেন চলবে। থাকবে ৭০টি বাড়তি ট্রেন। শুধু ট্রেন নয়, বাড়তি সরকারি-বেসরকারি বাস চলবে মেলার ক’দিন। চলবে ২২৫০টি বাস।

এছাড়া দুর্ঘটনা রুখতে বিশেষ ব্যবস্থা নিয়েছে রাজ্য। খবর পেলেই দুর্ঘটনাস্থলে পৌঁছে যাবেন ভলান্টিয়ার্সরা। মানুষকে সচেতন করতে ১০০০টি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার ৬ হাজার ৫০০ জন ভলান্টিয়ার্স থাকবেন মেলায়। দুর্ঘটনা রুখতে মেলা পর্যন্ত রাস্তায় থাকবেন বাইক আরোহী সার্জেন্টরা। পাশাপাশি, নজরদারি চালাতে মেলায় থাকছে সিসিটিভি ১০৫০। অগ্নিকাণ্ড রুখতে থাকছে ২৫টি ইঞ্জিন। ১০টি অস্থায়ী ফায়ার স্টেশন।

রাজ্যে যেভাবে করোনা ও ওমিক্রমের সংক্রমনের সংখ্যা বাড়ছে। দুশ্চিন্তায় উদ্বেগ বেড়েছে রাজ্য সরকারের মেলায় বহু মানুষের জমায়েত হবে। সেখান থেকে যাতে করোনা না ছড়ায় তার জন্য বিশেষ ব্যবস্থা নিয়েছে রাজ্য সরকার। করোনা রুখতে মেলায় মেডিক্যাল স্ক্রিনিং ক্যাম্প থাকবে ১৩টি। ময়দানে বাসে ওঠার আগে হবে আরটি পিসিআর টেস্ট। তেরোটি আলাদা আলাদা ক্যাম্প থাকছে।

মেলার এলাকায় থাকছে ৬০০ শয্যার একটি কোভিড হাসপাতাল। থাকছে ৫টি আইসোলেশন সেন্টার। সকলকে মাস্ক পরতে হবে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। সেই মাস্ক বিলি করবে সরকার এবং স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা। মানতে হবে শারীরিক দূরত্ববিধি।