চাচোলে হুঁশিয়ারি জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি আব্দুর রহিম বক্সীর পার্টিকে বিক্রি করে অট্টালিকা বানাচ্ছেন। পার্টি এসব বরদাস্ত করবে না

কুমার মাধব :: সংবাদ প্রবাহ :: মালদা :: পার্টির গুরুত্বপূর্ণ মিটিং-এ আসছেন না, আর পার্টিকে বিক্রি করে অট্টালিকা বানাচ্ছেন। পার্টি এসব বরদাস্ত করবে না। আপনি চেয়ার ছাড়বেন না আর ওই চেয়ারে আর কাউকে বসতে দেবেন না এটা চলবে না। চাচোল 2 নম্বর ব্লকের কনভেনশন থেকে হুঁশিয়ারি জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি আব্দুর রহিম বক্সীর। মিটিং এর ডাক পাননি পাল্টা প্রতিক্রিয়া চাচোল 2 নম্বর ব্লকের সহ-সভাপতি আদিত্য নারায়ন দাস এর। ঘটনাকে কটাক্ষ করেছে বিজেপি।

বেশ কয়েকজন দলের পদাধিকারী ,জনপ্রতিনিধি অনুপস্থিত ছিলেন এই সভায়। ফাঁকা ছিল বেশ কিছু চেয়ার। আর তা দেখে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন জেলা তৃণমূল সভাপতি। বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বলেন, এক লক্ষ ভোটে জেতা একজন বিধায়কের কনভেনশনে 50 টা চেয়ার খালি থাকবে এটা নিশ্চয়ই ভালো লাগেনা। টিম তৈরি করে আজকের মিটিংয়ের পর্যালোচনা করব।মঞ্চে বক্তব্য রাখার সময় নয় এই বিষয়ে তাকে প্রশ্ন করা হলে রহিম বক্সী বলেন, জেলা কমিটি আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি দলে থেকে যারা শুধু দলের সুযোগ সুবিধা নেবে আর দলের সাংগঠনিক কাজ কর্মে যাদের খুঁজে পাওয়া যাবে না তাদের নিয়ে আগামী দিনে পার্টি সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে। এই কনভেনশনে অনুপস্থিত ছিলেন না চাচোল 2 নম্বর ব্লকের সহ-সভাপতি আদিত্য নারায়ন দাস। তিনি বলেন এই সভায় তাকে ডাকা হয়নি।

তিনি বলেন এটা কোন পার্টির মিটিং না, এটা একটা গ্রুপ এর মিটিং। তৃণমূল জেলা সভাপতির এই হুঁশিয়ারি কে কটাক্ষ করেছে বিজেপি। জেলা বিজেপি সভাপতি গোবিন্দ চন্দ্র মন্ডল বলেন, তৃণমূল কংগ্রেসে এবার নেতায় নেতায় কাজিয়া শুরু হয়েছে। তৃণমূল কংগ্রেস আর গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব আবার শুরু হল নতুন করে একেবারে নেতায় নেতায় যুদ্ধ এবারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

one + sixteen =