চাচোল এর তৃণমূল বিধায়ক নিহার রঞ্জন ঘোষের সাথে চাচোল এর জেলা পরিষদ সদস্য সামিউল ইসলামের বিরোধ প্রকাশ্যে।

কুমার মাধব :: সংবাদ প্রবাহ :: মালদা ::  ফের প্রকাশ্যে তৃণমূলের দুই নেতার সংঘাত। চাচোল এর তৃণমূল বিধায়ক নিহার রঞ্জন ঘোষের সাথে চাচোল এর জেলা পরিষদ সদস্য সামিউল ইসলামের বিরোধ প্রকাশ্যে। ২০২৪ এ দিল্লিতে মমতা, সামিউল ইসলামের লেখা গান প্রকাশ অনুষ্ঠানে ডাক পেলেন না বিধায়ক। ক্ষুব্ধ নিহার ঘোষ। যদিও সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে নিহার ঘোষ কে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বলে দাবি সামিউল ইসলাম এর। এই ঘটনাকে কটাক্ষ করেছে বিজেপি।

২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে গান বেঁধেছেন মালদা জেলা পরিষদের সদস্য সামিউল ইসলাম। দিল্লিতে মমতা এই গান এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন এই দিন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ব্লক সভাপতি থেকে শুরু করে অন্যান্য দলীয় নেতৃত্বরা। কিন্তু সেই অনুষ্ঠানে দেখা যায়নি চাচোল বিধানসভার বিধায়ক নিহার রঞ্জন ঘোষ কে।

আর যা নিয়ে প্রকাশ্যে এসেছে দুই নেতার সংঘাত। এই বিষয়ে নিহার রঞ্জন ঘোষ বলেন, আমি যতটুকু জানি এটা পার্টির কোনো অনুষ্ঠান নয়। অনুষ্ঠান হয়েছে কি হয়নি সেটা আমি জানিনা। কে কি বলল বলতে পারব না তবে কি অনুষ্ঠান সেটা আমি জানিনা।

দলের একটা নিয়ম রয়েছে। ওখানে কি অনুষ্ঠান হল এটা তো কেউ জানেন না। এতে দলের ক্ষতি হচ্ছে। যদিও সামিউল ইসলাম এর দাবি হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে সবাইকে এই অনুষ্ঠান সম্বন্ধে জানানো হয়েছে। কে কোথায় আছেন তিনি জানেন না। বিধায়ক কখন কোথায় থাকেন সেটা তো আমরা জানি না। ব্লক সভাপতি এই অনুষ্ঠানটি ডেকেছেন তিনি সবাইকে অবগত করেছেন।

এই বিষয়ে চাচোল ১ নম্বর ব্লকের তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি সচ্চিদানন্দ চক্রবর্তী বলেন, বিধায়ককে জানানো হয়েছে কিনা জানিনা। তবে সমস্ত গ্রুপে মেসেজ করা হয়েছে। উনি গ্রুপগুলোতে আছেন। উনার কাছে খবর গেছে যে এই রকম একটা অনুষ্ঠান হচ্ছে। তৃণমূলের এই দুই নেতার সংঘাতকে কটাক্ষ করেছে বিজেপি।

বিজেপি যুব মোর্চার সহ সভাপতি সুমিত সরকার বলেন, কেবলমাত্র একটি অনুষ্ঠান নয় গোষ্ঠী কোন্দলের জন্য কোন অনুষ্ঠানে বিধায়ককে ডাকা হয় না। এটা ওদের নিজেদের মধ্যে গোষ্ঠী কোন্দল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × 3 =