ছটপুজো উপলক্ষে বর্ধমান শহরের দামোদরের সদরঘাটে চারটি ওয়াচ-টাওয়ার বসাচ্ছে পুলিস।

উদয় ঘোষ :: সংবাদ প্রবাহ :: বর্ধমান :: ছটপুজো উপলক্ষে লোক সমাগমের উপর নজরদারি রাখতে বর্ধমান শহরের দামোদরের সদরঘাটে চারটি ওয়াচ-টাওয়ার বসাচ্ছে পুলিস। পাশাপাশি পুজো চলাকালীন কেউ নদীর গভীর জলে চলে না যান, সেই জন্য দামোদরের জলের মধ্যে বাঁশের ব্যারিকেড তৈরি করা হবে বলে জানালেন পুলিস সুপার কামনাশিস সেন। রবিবার পুলিস সুপার আরও বলেন, ছটপুজোয় দামোদরে প্রচুর ভক্তের ভিড় হয়। সেজন্য যানজট এড়াতে পার্কিং ব্যবস্থায় জোর দেওয়া হচ্ছে। পাশেই জাতীয় সড়ক থাকায় নদীতে আসার সব রাস্তায় প্রচুর পুলিসের ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

সোমবার ছটপুজো উপলক্ষে বর্ধমান শহরের দামোদরের সদরঘাট পরিদর্শনে পুলিস সুপার ছাড়াও অতিরিক্ত পুলিস সুপার কল‍্যাণ সিংহরায়, বর্ধমান থানার আইসি সুখময় চক্রবর্তী সহ জেলা পুলিসেরর অন্যান্য আধিকারিকরা যান। সদরঘাট এলাকার বিভিন্ন ঘাটের পরিকাঠামো ও নিরাপত্তা খতিয়ে দেখেন তাঁরা। পুলিশ আধিকারিকরা ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বর্ধমান দক্ষিণের বিধায়ক খোকন দাস, তৃণমূল নেতা রাসবিহারী হালদার ও সদরঘাট ছটপূজো কমিটির সদস্যরা।

অন্যদিকে, ছটপুজোর প্রাক্কালে সোমবার বর্ধমান পুরসভা ও বর্ধমান উন্নয়ন সংস্থার যৌথ উদ্যোগে বর্ধমানের আলমগঞ্জ কল্পতরু মাঠ সংলগ্ন বাঁকা নদীর ঘাট সংস্কারে পদক্ষেপ গ্ৰহণ করা হয়। যেসমস্ত অবাঙালি সম্প্রদায়ের মানুষজন ছটপুজোয় অংশগ্রহণ করবেন এবং যাঁরা ঘাটে আসবেন পুজো দেওয়ার জন‍্য তাঁদের কোথাও যেন কোনও অসুবিধা না হয় তারজন‍্য বিশেষ নজরদারি এবং পদক্ষেপ গ্ৰহণ করা হয়েছে প্রশাসনের পক্ষ থেকে।

জেসিবি মেশিন দিয়ে ঘাট সংস্কার করা হয়। নদীর পলিমাটি সরিয়ে দেওয়া হয়। যাতে ভক্তদের কোনওরকম অসুবিধা না হয় সেজন‍্যই এই পরিষেবা প্রদান করা হয় পুর–কর্তৃপক্ষের তরফে। এছাড়াও বর্ধমান উন্নয়ন সংস্থার তরফে থেকে বাঁকা নদী সংলগ্ন এলাকাকে সাজিয়ে তোলা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × 1 =