জামুরিয়ায় রেশন কার্ড আধার কার্ড লিংক থাকার সত্ত্বেও রেশন নিয়ে ভোগান্তি

নিজস্ব সংবাদদাতা :: সংবাদ প্রবাহ :: আসানসোল :: ন্যায্য মূল্যের রেশন দোকানে সরকারি নিয়মে জেরে ভোগান্তি রেশন দোকান মালিক থেকে সাধারণ মানুষের। প্রতিদিনই বিক্ষোভের সম্মুখীন হতে হচ্ছে রেশন দোকান মালিকদের ।সমস্যার সমাধান না হলে রেশন দোকানের সামগ্রী না তোলার হুমকি রেশন ডিলার দের একাংশের। রেশন সামগ্রী সংগ্রহ করতে এসে দীর্ঘ অপেক্ষা গ্রাহকদের। বিক্ষোভের মুখে পড়তে হচ্ছে রেশন দোকান মালিকদের।

গ্রাহকদের অভিযোগ রেশনের জন্য ঘন্টার পর ঘন্টা লাইনে দাড়াতে হচ্ছে। মিল খাচ্ছে না রেশন কার্ডের সঙ্গে আধার কার্ডের তথ্য এবং মোবাইল নাম্বার। যার ফলে প্রচুর গ্রাহককে রেশন সামগ্রী না নিয়ে দীর্ঘ অপেক্ষার পর ফিরে যেতে হচ্ছে। রেশন দোকানের মালিক কে অভিযোগ জানালে তারা সরকারি নিয়ম-নীতিকে দায়ী করছেন বলে স্থানীয়দের অভিযোগ। জামুড়িয়ার বিভিন্ন রেশন দোকানে সকাল থেকে রয়েছে দীর্ঘ লাইন।

রেশন দোকান সংগঠনের নেতা মনোজ অধিকারী জানান গ্রাহকদের অভিযোগ সত্য। দীর্ঘ সময় লাইনে দাঁড়িয়ে থেকেও অনেকে রেশনের সামগ্রী না নিয়েই ফিরতে হচ্ছে। যার জেরে গ্রাহকদের বিক্ষোভের সম্মুখীন হতে হচ্ছে। মনোজ অধিকারী জানান সরকারি নিয়ম অনুযায়ী ইলেকট্রনিক পয়েন্ট অফ সেল অর্থাৎ (ই-পস) মেশিনের সাহায্যে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে রেশন দেওয়ার জন্য সরকারি নির্দেশ এসেছে। কিন্তু প্রায় সময় সার্ভার সমস্যা থাকার জন্য তারা এই মেশিন ব্যবহার করতে পারছেন না। যার ফলে গ্রাহককে রেশন দিতে দেরি হচ্ছে।

তাছাড়াও বহু গ্রাহকের রেশন কার্ড থাকলেও আধার কার্ড নেই। অধিকাংশ গ্রাহকের আধার কার্ডের সঙ্গে রেশন কার্ডের তথ্য মিল খাচ্ছে না। অধিকাংশ গ্রাহকের ফোন নাম্বার ভুল থাকার জন্য তারা ওটিপি পাচ্ছেন না। গতকাল ইকরা গ্রামে গ্রাহকরা উত্তেজিত হয়ে রেশন মালিক কে হেনস্তা করে এবং ই-পস মেশিন ভেঙে দেয়। এই ধরনের ঘটনা চলতে থাকলে তারা রেশন দোকানের সামগ্রী তোলা বন্ধ করে দেবেন বলে জানান মনোজ অধিকারী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *