নিউজ ডেস্ক :: সংবাদ প্রবাহ :: গোয়া :: রাজনীতির আঙিনায় পা রেখেছেন লিয়েন্ডার পেজ। তুলে নিয়েছেন তৃণমূলের পতাকা। আর এবার কিংবদন্তি টেনিসতারকা জানিয়ে দিলেন তিনি ভোটে লড়তে আগ্রহী। তবে কি গোয়ায় আগামী বছর বিধানসভা নির্বাচনে মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসেবে লিয়েন্ডারকেই মুখ করে এগোতে চাইছে ঘাসফুল শিবির? তাঁর মন্তব্যের পরই উসকে গেল জল্পনা।

সোমবার একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে অলিম্পিক পদক জয়ী লিয়েন্ডার জানান, তিনি যদি যানটা পালটেছেন, তবে এখনও ভারতের জন্যই খেলবেন। তাঁর কথায়, “আমার সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দীর্ঘদিনের সম্পর্ক। উনি সত্যিকারের চ্যাম্পিয়ন। আমি নির্বাচনে লড়তে আগ্রহী। কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তৃণমূল দল যা সিদ্ধান্ত নেবে, সেটাই হবে।” তবে আপাতত গোয়া রাজনীতি আরও ভালভাবে বুঝতে চান তিনি।

বাংলা জয়ের পর এই মুহূর্তে তৃণমূলের পাখির চোখ গোয়া। ৪০ টি আসনেই লড়তে পারে তৃণমূল। বাংলার মতো গোয়াও ক্রীড়াপ্রেমী রাজ্য। সম্ভবত সেকারণেই রাজনীতিবিদদের পাশাপাশি গোয়ার ক্রীড়া তারকাদের টার্গেট করেছে পশ্চিমবঙ্গের শাসক দল। ইতিমধ্যেই তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন একাধিক ফুটবলার। গোয়ার সাংস্কৃতিক মহলের অনেকেও যোগ দিয়েছেন তৃণমূলে।

গত বৃহস্পতিবার মমতার হাত ধরে এমন দুই মহাতারকা ঘাসফুল শিবিরে যোগ দেন, যাঁরা গোয়ার রাজনৈতিক অঙ্ক বদলে দিতে পারেন। লিয়েন্ডারকে দলে স্বাগত জানিয়ে তৃণমূল সুপ্রিমো বলেছিলেন, “লিয়েন্ডার আমার ছোট ভাইয়ের মতো। আমি ওকে সেই যুবকল্যাণ মন্ত্রী থাকার সময় থেকে ওকে চিনি। ও তৃণমূলে যোগ দেওয়ায় আমি খুবই খুশি।” আর এবার ভোটের লড়াইয়ে আগ্রহ প্রকাশ করে গোয়ায় ‘খেলা’ জমিয়ে দিলেন লিয়েন্ডার।

সংবাদ সূত্র :: সংবাদ প্রতিদিন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here