নিউজ ডেস্ক :: সংবাদ প্রবাহ ::কোলকাতা :: রাত পোহালেই ত্রিপুরার মাটিতে বিশাল জনসভা করবেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। গত কয়েকদিন ধরেই সেই প্রস্তুতি চলছিল। কিন্তু শেষবেলায় এই সভা ঘিরেই তৈরি হয়েছে নয়া অনিশ্চিয়তা। কারণ একেবারেই প্রস্তুতি শেষে সভাস্থল বদল করতে বলল ত্রিপুরা পুলিশ।

আর তা থেকেই নয়া জটিলতা তৈরি হয়েছে। যদিও স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের হুঁশিয়ারি, ভাঙা মঞ্চের উপরেই সভা হবে। আর নির্দিষ্ট সময়েই বক্তব্য রাখবেন অভিষেক। তবে যেভাবে ত্রিপুরাতে হেনস্তা করা হচ্ছে তৃণমূলকে তার তীব্র প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন তৃণমূলের মহাসচিব। তাঁর দাবি, বিপ্লব দেবের সরকার তৃণমূলকে ভয় পেয়েছে।

আজ শনিবার কলকাতায় সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। সেখানে কার্যত বিজেপিকে তুলোধনা করেন তিনি। শুধু তাই নয়, বিপ্লব দেবকে তীব্র আক্রমণ করেন পার্থবাবু। তাঁর মতে, ওরা ভয় পেয়েছে বলেই ত্রিপুরাতে তৃণমূলকে নানাভাবে আটকানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। সেখানকার মানুষদের আশে দাঁড়াতে দেওয়া হচ্ছে না। দুয়ারে সরকার আনব বলছি, উন্নয়নের কথা বলছি। আর সেখানে দাঁড়িয়ে বিপ্লব দেবের সরকার দুয়ারে গুন্ডা নিয়ে আসছে বলে অভিযোগ পার্থ চট্টপাধ্যায়ের। তবে এই সব করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আটকানো যাবে না বলে হুঁশিয়ারি তৃণমূল মহাসচিবের।

অন্যদিকে মঞ্চ ভেঙে দেওয়া প্রসঙ্গে কুণাল ঘোষ বলেন জঙ্গলরাজ চলছে। সবকিছু ঠিক হয়ে যাওয়ার পর কীভাবে মঞ্চ ভেঙে দেওয়ার কথা বলে? প্রশ্ন কুণালের। উল্লেখ্য, ত্রিপুরাতে সভা করতে গত কয়েকদিন আগেই অনুমতি দেয় ত্রিপুরা পুলিশ। একাধিক শর্ত অনুযায়ী এই সভা করার অনুমতি দেওয়া হয়। সেই মতো সমস্ত প্রস্তুতি প্রায় শেষ। কিন্তু শেষ বেলায় ত্রিপুরা পুলিশের একাধিক নিয়মে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here