নিজস্ব সংবাদদাতা :: সংবাদ প্রবাহ :: দুর্গাপুর :: দুর্গাপুরের বিবেকানন্দ হাসপাতাল একটি নামী সুপার স্পেশিয়ালিটি হাসপাতাল বলেই পরিগণিত হয় । বাইরেটা যেমন ঝাঁ চকচকে তা দেখলে কেউ বুঝবেন না আসলে ভেতরে রুগী এবং তার পরিজনদের সঙ্গে কি চলছে ।

বলাযায় পয়সা নিয়ে রুগীর পরিবারকে ঠকানো হচ্ছে| এমনই অভিযোগ এসেছে আমাদের দপ্তরে বিবেকানন্দ হাসপাতাল সমন্ধে|দুর্গাপুরের বিবেকানন্দ হাসপাতালে চলছে চূড়ান্ত অব্যবস্থা

 

 

 

 

 

 

অভিযোগে বলা হচ্ছে রুগীকে সকালের প্রাতঃকৃত্য সঙ্গী করেই বিছানায় পড়ে থাকতে হচ্ছে । কর্তৃপক্ষের কাছে জিজ্ঞাসা করলে কোনো সদুত্তর নেই ।

রুগী বিছানায় শুয়ে আছেন চূড়ান্ত অবহেলা সঝ্য করেই অথচ বিল পেমেন্টের সময় কিন্তু পুরোটাই ঠিক মত বুঝে নিচ্ছেন  কর্তৃপক্ষ ।

আমরা বলছি স্থানীয় সাগরভাঙ্গার পেশেন্ট রুগির নাম শান্তনু ভাট্টাচার্য ওয়ার্ড নম্বর নিউ এইচ ডি৷ বেড নম্বর ২এর কথা ।ভদ্রলোকের পা ভাঙ্গা সেখানে লোহার রড পরানো আছে । চলছে ডায়ালিসিস তার ওপর ব্রেন স্ট্রোক হয়েছে । এই রকম একজন মরনাপন্ন রুগীকে দেখা গেল অত্যন্ত অপরিস্কার অবস্থায় বেড়ে পড়ে থাকতে ( সঙ্গের ছবিটি দেখুন ) ।

অভিযোগ আরও আছে নার্সেরা যখন পা ধরে সরান তখন সম্ভবত ভুলেই যান যে ওনার পা ভাঙ্গা আছে এবং সেখানে লোহার রড ঢোকানো আছে । তাদের অপটু নাড়াচাড়ায় রুগী যন্ত্রনায় চিত্কার করে উঠছেন ।এসব কর্তৃপক্ষের কানে দিলেও রোগীর পরিজনদের বক্তব্য কেউ কান দেননি । যেমন চলছিল তেমনই চলছে ।

আমরা এইবিষয়ে জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরে যোগাযোগের চেষ্টা করেছিলাম কিন্তু ছুটির আবহে নির্দিষ্ট ব্যাক্তিকে পাওয়া যায় নি ।নামী সুপার স্পেশিয়ালিটি হাসপাতালের যদি এই অবস্থা হয় তাহলে সাধারণ মানুষ যাবেন কোথায় এই প্রশ্ন রোগীর পরিজনেরা করছেন রাজ্যের স্বাস্থদপ্তরের কাছে ।