নাইট কার্ফু নিয়ে জনসাধারণ কে সচেতন করতে পথে নেমেছেন বর্ধমান থানার আই.সি সুখময় চক্রবর্তী।

উদয় ঘোষ :: সংবাদ প্রবাহ :: বর্ধমান :: ফের রাজ্য বারছে করণা সংক্রমণ, পূর্ব বর্ধমান জেলা জুড়ে কঠোর পদক্ষেপ নিতে চলেছে জেলা পুলিশ। করণা সংক্রমণ ঠেকাতে সোমবার মাস্ক বিতরণ কর্মসূচিতে নামলো জেলা পুলিশ। এদিন সকালে বর্ধমান শহরের কার্জনগেট চত্বরে পথ চলতি সাধারণ মানুষের বিতরণ করা হয় মাস্ক। যারা মাস্ক ছাড়াই চলাফেরা করছেন তাদের মাস্ক দেওয়ার পাশাপাশি পরবর্তী সময় বিনা মাস্কে ধরা পরলে আইনগত ভাবে পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে সর্তক করে দেওয়া হয় জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে।

পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ সুপার কামনাশিষ সেন জানিয়েছেন, দূর্গাপূজোয় কোভিড নিয়মে কিছুটা শীথিলতা থাকায় কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা অনেকটাই বেরেগেছে। তাছাড়া আসন্ন তৃতীয় ঢেউ এর আগাম সর্তকতা হিসাবে সাধারণ মানুষকে মাস্ক ব্যবহারে বাধ্যতামূলক করা লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হচ্ছে। সেই সাথে টোটো, অটো,বাস সহ বিভিন্ন পাবলিক পরিবহনের ক্ষেত্রে সকলকে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে। অন্যথায় পরবর্তী সময় কোভিড নিয়ন্ত্রণবিধি আইনে কেস দেওয়া হবে বলে হুশিয়ারি দেন পুলিশ সুপার।

উল্লেখ্য, ইতিমধ্যেই রবিবার রাত থেকে শুরু হয়েছে নাইট কার্ফু। বর্ধমান শহর সহ পূর্ব বর্ধমান জেলার সর্বত্র রাত ১১টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত চলবে নাইট কার্ফু। প্রথম দিন থেকেই নাইট কার্ফু নিয়ে জনসাধারণ কে সচেতন করতে পথে নেমেছেন বর্ধমান থানার আই.সি সুখময় চক্রবর্তী। বর্ধমান শহরের বিভিন্ন মোড়ে তৈরী করা হয়ে চেক পোষ্ট।

খুব দরকার ছাড়া অকারনে কেউ রাস্তায় বের না হন এবং মুখে মাস্ক পরতে হবে, পথ চলতি মানুষের কাছে এই আবেদন জানাছেন আই.সি। যাদের মুখে মাক্স নেই তাদের হাতে একটি করে মাস্ক তুলে দেন তিনি। সোমবার থেকে নাইট কার্ফু অমান্য করলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন আই.সি সুখময় চক্রবর্তী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *