চলতি বছর দুবাইয়ে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ম্যাচ দিয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের অভিযান শুরু করেছিল বিরাট কোহলির টিম ইন্ডিয়া। এবার মহিলা বিশ্বকাপের সূচিতেও দেখা গেল তারই প্রতিফলন। আগামী বছর নিউজিল্যান্ডে বসতে চলা বিশ্বকাপের আসরে ভারতীয় প্রমিলা বাহিনীর প্রথম প্রতিপক্ষ সেই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তান।

বুধবার ২০২২ সালের মহিলা বিশ্বকাপের সূচি ঘোষণা করল আইসিসি। ৪ মার্চ বে ওভালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে আয়োজক নিউজিল্যান্ডের ম্যাচ দিয়ে শুরু টুর্নামেন্ট। দ্বিতীয় দিনই মাঠে নামবে বাংলাদেশ। প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা। অন্যদিকে সেদিনই হ্যামিলটনে গতবারের চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড মুখোমুখি হবে অস্ট্রেলিয়ার। আর হরমনপ্রীত কৌরদের প্রথম ম্যাচ পাক দলের বিরুদ্ধে বে ওভালে ৬ মার্চ।মোট আটটা দল ৩১ দিনে ৩১টি ম্যাচ খেলবে। লিগ ফরম্যাটেই প্রথমে খেলা হবে। অর্থাৎ প্রতিটি দল একে অপরের বিরুদ্ধে মাঠে নামবে। এরপর তালিকার উপরে থাকা চারটি দল পৌঁছে যাবে সেমিফাইনালে। প্রথম সেমিফাইনালটি হবে ৩০ মার্চ ওয়েলিংটনে। ৩১ তারিখ দ্বিতীয় শেষ চারের লড়াই অনুষ্ঠিত হবে ক্রাইস্টচার্চে। টুর্নামেন্টের ফাইনাল ৩ এপ্রিল ক্রাইস্টচার্চে। বৃষ্টির জন্য কিংবা অন্য কোনো কারণে সেমিফাইনাল বা ফাইনাল ম্যাচ বাতিল হলে রিজার্ভ ডে হিসেবে অতিরিক্ত এক দিন থাকছে।

অতিমারীর পর এই প্রথম মহিলাদের আইসিসি বিশ্বকাপ আয়োজিত হচ্ছে। এর আগে ২০২০ সালের মার্চে হয়েছিল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। যেখানে ভারতকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল আয়োজক অস্ট্রেলিয়া। সেবার তীরে এসে তরী ডুবেছিল হরমনপ্রীতদের। তাই এবার ভারতীয় দলের থেকে অনেকখানি প্রত্যাশা ক্রিকেটপ্রেমীদের।

ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থা জানিয়েছে, ২০১৭-২০২০ সালের মধ্যে মহিলা চ্যাম্পিয়নশিপে দলগুলোর পারফরম্যান্স অনুযায়ী তারা বিশ্বকাপে যোগ্যতা অর্জন করেছে। যেমন অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা এবং ভারত সরাসরি পৌঁছে গিয়েছে মূল পর্বে। এদিকে আয়োজক দেশ হিসেবে বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পেয়েছে নিউজিল্যান্ড। বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ আবার ওয়ানডে ব়্যাঙ্কিংয়ের ভিত্তিতে টুর্নামেন্টে কোয়ালিফাই করেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here