ফের রণক্ষেত্র বিশ্বভারতী, উত্তপ্ত কবিগুরুর স্মৃতি বিজড়িত শান্তিনিকেতন

নিজস্ব সংবাদদাতা :: সংবাদ প্রবাহ :: বোলপুর :: বিভিন্ন দাবিদাওয়া নিয়ে টানা ২১ দিন ধরে বিশ্বভারতীর উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তীর পূরবিতা বাসভবনের সামনে শান্তিপূর্ণ অবস্থান বিক্ষোভ করছে বিশ্বভারতীর একাকংশ পড়ুয়ারা। এর মাঝেই মঙ্গলবার দুপুরে উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী তিনি সেন্ট্রাল অফিসে আসার জন্য বাড়ি থেকে বের হন।

তিনি বিশ্বভারতীর সমস্ত নিরাপত্তারক্ষী ও আধিকারিকদের তার বাসভবনের সামনে আসার জন্য নির্দেশ দেন বলে পড়ুয়াদের দাবি। এরপরেই উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী তিনি যখন তার বাসভবন থেকে বেরোনোর চেষ্টা করেন তখন পড়ুয়ারা তারা জানান তাদের দাবিগুলো মেনে নিন তিনি।

কিন্তু উপাচার্য তিনি রণমূর্তি ধারন করে বিশ্বভারতীর নিজস্ব নিরাপত্তারক্ষীদের নির্দেশ দেন পড়ুয়াদের মারধর করতে এমনটাই অভিযোগ পড়ুয়াদের। এরপরই নিজস্ব নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে পড়ুয়াদের ধস্তাধস্তি শুরু হয়। পড়ুয়াদের মারধর করে তারা। পাশাপাশি পড়ুয়ারা রাস্তার উপর শুয়ে পড়লে তাদের উপর দিয়ে হেঁটে যাওয়ার নির্দেশ দেন উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী এমনটাই অভিযোগ।

এরপরেই বিশ্বভারতীর নিজস্ব নিরাপত্তারক্ষীরা অবস্থী মঞ্চের পড়ুয়াদের চেয়ার ছোড়াছুড়ি করে। চেয়ারে করে পড়ুয়াদের মারধর করে বলে অভিযোগ। অবশেষে পড়ুয়ারা তাদের সাইকেল মটরসাইকেল গুলি দিয়ে রাস্তা ঘিরলে সেইগুলিও সরিয়ে দেয় নিরাপত্তারক্ষীরা বলে অভিযোগ। এই ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়ায় এলাকায়।

অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে আসেন বোলপুর ও শান্তিনিকেতন থানার পুলিশ। বিশ্বভারতীর উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তীর পূরবিতান বাসভবন থেকে নিরাপত্তারক্ষীদের ঘেরাটোপে অবশেষে আসেন বিশ্বভারতীর সেন্ট্রাল অফিসে তার নিজস্ব দপ্তরে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *