বর্ধমানের রথতলা এলাকায় শাঁখামুঠি সাপ উদ্ধার

উদয় ঘোষ :: সংবাদ প্রবাহ :: বর্ধমান :: শুত্রুবার বর্ধমানের রথতলা এলাকার বাঁকা নদীর ধারে এক ব্যক্তির বাড়ির পাঁচিলে ঝোলানো মাছ ধরার জালে আটকে থাকা অবস্থায় স্থানীয় মানুষ দেখতে পায় একটি শাঁখামুটি সাপকে। স্থানীয় বাসিন্দা ইভা দে পরিবেশপ্রেমী সংস্থার সদস্য অর্ণব দাস কে খবর দিলে তিনি ঘটনাস্থলে পৌঁছে সাপটিকে জাল কেটে উদ্ধার করে ফের জঙ্গলে ছেড়ে দেন।

অর্ণব জানিয়েছেন, শাঁখামুটি সাপ পরিবেশের ভারসাম্য বজায় রাখতে খুবই উপকারী। যদিও এটিও অতি বিষধর সাপ। তবু পশ্চিমবাংলায় এই সাপের কামড়ে মৃত্যুর কোনো ঘটনার তথ্য নেই। তিনি জানিয়েছেন, এই সাপ অন্য বিষধর যেমন গোখরো, চন্দ্রবোরা প্রভৃতি সাপের বাচ্চা খেয়ে নেয়। ফলে পরিবেশে ভারসাম্য বজায় থাকে। কিন্তু বেশ কয়েকবছর যাবৎ শাঁখামুটি সাপের সংখ্যা অনেক কমে গেছে। মানুষ ও অসচেতন ভাবে এই সাপকে মেরে ফেলেছে।

অর্নব দাস জানিয়েছেন, এদিন যে সাপটি উদ্ধার হয়েছে এটি একটি স্ত্রী সাপ। এটি লম্বায় প্রায় ৪ফুট। তিনি জানিয়েছেন, এই সাপকে নিয়ে বনদপ্তর এবং পরিবেশপ্রেমীদের মধ্যে একটি কথা প্রচলন আছে যে, শাঁখামুটি যে জঙ্গলে বা এলাকায় থাকে সেখানে এই সাপ একজন বন সুরক্ষা কর্মীর কাজ করে। কারণ একই এলাকায় অন্য বিষধর সাপের বংশবৃদ্ধি রোধে এই সাপের সক্রিয় ভূমিকা থাকে। তিনি এও জানিয়েছেন, এই সাপ স্বভাবে লাজুক প্রকৃতির। এই সাপের দ্বারা মানুষের উপর আক্রমণের ঘটনার কথা তেমন শুনতেই পাওয়া যায়না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × three =