বর্ধমান জেলায় চলতি আর্থিক বর্ষে সহায়ক মূল্যে ধান কেনার প্রক্রিয়া শুরু হতে চলেছে।

উদয় ঘোষ :: সংবাদ প্রবাহ :: বর্ধমান :: জেলায় চলতি আর্থিক বর্ষে সহায়ক মূল্যে ধান কেনার প্রক্রিয়া শুরু হতে চলেছে। ধানের সহায়ক মূল্য বাড়ানোর পাশাপাশি অভাবি চাষিদের ধান কেনার বিষয়ে জোর দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ডিস্ট্রিক্টলেভেল মনিটরিং কমিটি। বুধবার  এই নিয়ে জেলাশাসক দফতরে বৈঠক হয় । এই দিনের বৈঠকে উপস্থিত ছিলেনমন্ত্রী স্বপন দেবনাথ, জেলা পরিষদের সভাধিপতি শম্পা ধারা, সহ সভাধিপতি দেবু টুডু, জেলা খাদ্য নিয়ামক আবির বলি, জেলা কৃষি আধিকারিক জগন্নাথ চট্টপাধ্যয় ও খাদ্য কর্মাধক্ষ মেহবুব মন্ডল।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, গত আর্থিক বছরে ৫ লক্ষ ৯২ হাজার ৭২৯ মেট্রিক টন ধান কেনা হয়েছে। রাজ্যের নিরিখে সহায়ক মূল্যে ধান কেনায় প্রথম স্থানে রয়েছে পূর্ব বর্ধমান জেলা। ধান কেনার ক্ষেত্রে গত বছরের তুলনায়  এবছর প্রায় ১ লক্ষ মেট্রিক টন লক্ষ্যমাত্রা বাড়ানো হয়েছে। ২০২১-২২ আর্থিক বছরে ধান কেনার লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে ৬ লক্ষ ৭০ হাজার মেট্রিক টন। বিশেষ করে অভাবি চাষিদের থেকে ধান কেনার লক্ষমাত্রা পূরণ করার বিষয়ে জোর দিতে চলেছে জেলা প্রশাসন। সহায়ক মূল্যে ধান কেনায় প্রথম স্থানে  রয়েছে পূর্ব বর্ধমান জেলা। রাইস মিল, কৃষি সমবায় সমিতি ও স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মাধ্যমে ধান কেনা হবে।

তিনি আরও বলেন,” কেন্দ্রীয় সরকার অফ সি আইয়ের মাধ্যমে ধান ৭০ হাজার মেট্রিক টন ধান কিনবে। বাকি ৬লক্ষ মেট্রিক টন ধান কিনবে রাজ্য সরকার। গত বছর অফ সি আই ৭০ হাজার মেট্রিক টন ধান কেনার কথা জানালেও সেই লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করেনি। তাই বাংলার চাষিদের বঞ্চনার কথা বললেও কেন্দ্রীয় সরকার আদতে চাষিদের কথা ভাবে না।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *