বর্ধমান পুরসভার স্টোর থেকে চারটি রোড রোলার উধাও হয়ে গিয়েছে !

উদয় ঘোষ :: সংবাদ প্রবাহ :: বর্ধমান :: পুরসভার স্টোর থেকে চারটি রোড রোলার উধাও হয়ে গিয়েছে। কোটি টাকার সম্পত্তি খুইয়ে তদন্তে নেমেছে পুর–কর্তৃপক্ষ। পুরসভা সূত্রে জানা গিয়েছে, পুর এলাকায় রাস্তাঘাটের কাজের জন্য পুরসভার কাছে মোট ৪টি রোড রোলার ছিল। তার মধ্যে দুটি ব্রিটানিয়া রোড মাস্টার ও দু’টি জেসিবি মডেলের রোড রোলার। ষাঁড়খানা এলাকায় থাকা পুরসভার নির্দিষ্ট স্টোরে সেগুলি রাখা থাকত। পুরসভার স্টোরে মজুত রোড রোলার সহ অন্যান্য সম্পত্তি দেখভাল ও সুরক্ষার জন্য একজন স্টোর সুপারিনটেন্ডেন্ট ও ২৪ ঘণ্টার কয়েকজন নিরাপত্তাকর্মী নিযুক্ত রয়েছে।

২০১৮ সালের ২৩ অক্টোবর পুর–বোর্ডের মেয়াদ শেষ হওয়ার পর দীর্ঘদিন কোনও পুরবোর্ড ছিল না। পরিবর্তে পুরসভা পরিচালনার জন্য প্রশাসক নিযুক্ত করা হয়েছিল। সেই সময়ই ওই রোড রোলার চারটি দু’দিনে স্টোর থেকে বেরিয়ে গিয়েছে। কীভাবে স্টোর থেকে এই রোড রোলারগুলি গায়েব হয়ে গেল তা নিয়ে ইতিমধ্যেই তোলপাড় শুরু হয়েছে।। বর্তমানে কোথায় রয়েছে সেগুলি তা নিয়ে বিশবাঁও জলে পুর–কর্তৃপক্ষ। যদিও রোড রোলারের খোঁজে ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু করেছে পুরসভা।

দীর্ঘদিন ধরে পুরবোর্ড ছিল না। বর্ধমান পুরসভার নতুন প্রশাসক বোর্ড দু’মাস আগেই দায়িত্ব নেয়। তারপর শহরজুড়ে বেশকিছু বকেয়া কাজ শুরু হয়েছে। অনেক হিসেবনিকেশও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এরই মধ্যে বৃহস্পতিবার বেলায় খবর আসে যে, পুরসভার গোডাউনে চারটি রোড রোলার উধাও। রোড রোলারগুলি কোথায় রয়েছে সেবিষয়ে সঠিকভাবে কেউ কিছু বলতে পারছেন না।

নতুন পুর প্রশাসক বোের্ডর চেয়ারম্যান অবশ্য একথা মেনে নিয়েছেন। চেয়ারম্যান প্রণব চট্টোপাধ্যায় বলেন, হ্যাঁ, চারটি রোড রোলার বেপাত্তা। তিনি আরও বলেন, রোলার তো আর পকেটে করে নিয়ে যাওয়ার জিনিস নয়। তদন্ত শুরু হয়েছে। আইনের পথেই সব হবে। শনিবারের মধ্যেই এর তত্ত্বতালাশ করে ফেলবেন বলে তিনি দাবি করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three × four =