বারাসাতের লোকোশেডের পুকুর ঘাটে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ছট পুজো, উপস্থিত পৌর প্রশাসক।

নিজস্ব সংবাদদাতা :: সংবাদ প্রবাহ :: বারাসাত :: কার্তিক মাসের শুক্লা ষষ্ঠী তিথিতে অনুষ্ঠিত হয় ছট পুজো। ছট পুজো হল আদতেই সূর্য এবং তাঁর পত্নী উষা ও প্রত্যাশার পুজো। মোট চারদিন ধরে চলে এই পুজো। পূজার নিয়ম মেনে প্রথমদিন মহিলারা একবার কুমড়ো সবজি দিয়ে ভাত খেয়ে 12 ঘন্টা উপবাসে থাকেন।এরপর খাবার খেয়ে আবার 24 ঘন্টা উপবাসে থাকেন। এবং আরো একবার খাবার খেয়ে ফের 36 ঘন্টা উপোষ থেকে জলাশয় অথবা নদীতে গিয়ে আবক্ষ জলে দাঁড়িয়ে সূর্যের কাছে নিজের প্রার্থনা প্রকাশ করেন।

তবে বিগত দুই বছর ধরে করোনা আবহে অন্যান্য উৎসবের মতোই ছট পুজো ঘিরে রয়েছে বেশ কিছু বিধিনিষেধ। মূলত বিহার, উত্তরপ্রদেশে পালিত হয় এই ধর্মীয় উৎসব। কিন্তু এখন ছট পূজা উদযাপন শুধু বিহারী সম্প্রদায়ের মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই, সারাদেশের বিভিন্ন সম্প্রদায় এবং ধর্মের মানুষ এখন এই উৎসবকে আপন করে নিয়েছেন। সেইমতো উত্তর 24 পরগনার সদর শহর বারাসাতের কারসেড সংলগ্ন এলাকায় লোকোশেড পুকুরে প্রতি বছরের মতো এ বছরেও ছট পুজোর আয়োজন করা হয়।

বুধবার বিকেলে ছট পুজো উপলক্ষ্যে সেখানে উপস্থিত হন বারাসাত পৌরসভার মুখ্য প্রশাসক সুনীল মুখার্জী। পুকুর ধার দিয়ে দেখা গেল বহু মানুষ নিয়ম রীতি মেনে ছট পূজা উদযাপন করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

19 − four =