নিজস্ব সংবাদদাতা :: সংবাদ প্রবাহ ::বারাসাত :: গত ৩ ই নভেম্বর সন্ধ্যাবেলায় হাঁটতে বেরিয়ে বেপরোয়া টোটোর ধাক্কায় গুরুতর আহত হন নতুন পুকুর সুকান্তনগরের বাসিন্দা বছর ৬৯ দীপক কুমার সেন। সিসিটিভি ফুটেজে মর্মান্তিক ঘটনার ছবি সামনে এসেছে। সেদিন রাতেই শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে বারাসাতের একটি বেসরকারি নার্সিংহোমে ভর্তি করানো হয় দীপক বাবুকে। এরপর শনিবার ভোররাতে মৃত্যু হয় নতুন পুকুরের বাসিন্দা দীপক বাবুর।বারাসাত থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয় পরিবারের পক্ষ থেকে।

তাদের অভিযোগ বেপরোয়া টোটো চালক মদ্যপ অবস্থায় ছিলেন। যার জেরে এই দুর্ঘটনা দাবি মৃতের পরিবারের। সংবাদমাধ্যমকে পরিবারের দাবি, টোটোটি বেপরোয়া গতিতে এসে সজোরে তাঁদের বাবাকে ধাক্কা মারে। টোটো চালক মদ্যপ অবস্থায় ছিল পরিবারের ধারণা।

পরিবারের আরো দাবি, ঘটনাস্থলে প্রত্যক্ষদর্শীরা ঘটনার আকস্মিকতায় খেয়াল করতে না পাড়ায় ওই টোটো চালক মিথ্যার আশ্রয় নেয়। সে জানায় রাস্তায় মাথা ঘুরিয়ে পড়ে যায়, যা দেখে সে দাঁড়িয়ে পড়ে। এমনকি এরপরই টোটো চালক তাদের বাবাকে বাড়ি পৌঁছে দেয় এবং পরিবারকে জানায় মাথা ঘুরিয়ে পড়ে যাওযার গল্প, সাথে ঘটনাস্থলের নামও মিথ্যা বলে।

রাতে শরীরের অবস্থার অবনতি ঘটে এবং তড়িঘড়ি ভর্তি করতে হয় বারাসাতের একটি বেসরকারি নার্সিংহোমে। শনিবার সেখানে মৃত্যু হয় তাদের বাবার। টোটো চালকদের বিরুদ্ধে মৃতের ছেলে জানায়, এইভাবে চলতে থাকলে অনেকেই তাদের বাবা-মা কে হারাবে। রাস্তায় টোটো চালকের অবাধ যাতায়াত যার জেরে রাস্তায় হাঁটার উপায় নেই। ঘটনার সঠিক বিচার দাবি করলেন মৃতের ছেলে অভিষেক সেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here