বার্ন্পুরের হীরাপুরে মিলল অস্ত্র কারখানা, বাড়ির নিচে সুড়ঙ্গে তৈরি হত গুলি ও বন্দুক

সুব্রত বাউরি :: সংবাদ প্রবাহ :: আসানসোল :: হীরাপুর থানার রহমতনগর নয়াবস্তি এলাকায় অস্ত্র কারখানার খোঁজ পেল পুলিশ। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে সোমবার দুপুরে অভিযান চালিয়ে আগ্নেয়াস্ত্র ও আগ্নেয়াস্ত্র তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার হয়। এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত দু’জনকে আটক করা হয়েছে।

জানা গিয়েছে, দীর্ঘদিন ধরে এই এলাকার একটি বাড়ির মাটির নিচে সুড়ঙ্গ তৈরি করা হয়। সেখানেই অস্ত্রশস্ত্র তৈরি করা হয়। গোপন সূত্রে খবর পান তদন্তকারীরা। সেই অনুযায়ী ওই বাড়িটিতে যান হীরাপুর থানার পুলিশ। আসানসোল দুর্গাপুর পুলিশের ডিসি ওয়েস্ট অভিষেক মোদির নেতৃত্বে বিশাল পুলিশবাহিনী ঘটনাস্থলে পৌছয়। সেখানে অভিযান চালিয়ে আগ্নেয়াস্ত্র ও আগ্নেয়াস্ত্র তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার করে। সেগুলি বাজেয়াপ্ত করে পুলিশ। তবে কতগুলি অস্ত্র উদ্ধার হয়েছে বা কোন জাতীয় অস্ত্র তৈরির যন্ত্র উদ্ধার হয়েছে তদন্তের স্বার্থে পুলিশ তা এখনই প্রকাশ্যে আনেনি।

দেড়মাস আগেই কুলটি থানার বরাকরের বাংলা ঝাড়খণ্ড সীমানা এলাকায় নাকা চেকিংয়ের সময় ২৫টি সেভেন এমএম পিস্তল এবং ৪৬ টি ম্যাগাজিন বাজেয়াপ্ত করা হয়। এই ঘটনায় আস মহম্মদকে নামে স্থানীয় একজন গ্রেপ্তারও করা হয়। সেই সূত্র ধরে প্রথমে ডিসেরগড় এবং হীরাপুরে হানা দেয় পুলিশ। গোপন অভিযানেই অস্ত্র কারখানার হদিশ মিলল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three × 5 =