বৈষ্ণব মতে জগদ্ধাত্রী পুজো হয়ে আসছে বর্ধমানের খোসবাগান এলাকার বোস পরিবারে।

উদয় ঘোষ :: সংবাদ প্রবাহ :: বর্ধমান :: বৈষ্ণব মতে জগদ্ধাত্রী পুজো হয়ে আসছে বর্ধমানের খোসবাগান এলাকার বোস পরিবারে। ১০০ বছরের বেশি পুরনো এই পুজোর রীতিনীতি, মূর্তি, সাজসজ্জা সবই অপরিবর্তিত রয়েছে।নবমী তিথি থেকে এখানে পুজো শুরু হয়। এরপর দশমীর পুজোর পর হয় প্রতিমা নিরঞ্জন। তবে পুজোর দুদিন ধুমধাম হলেও সারা বছরই একজন নিত্যপুজো হয়ে থাকে।

চার পুরুষ ধরে চলে আসা এই পুজো পরিবারের বর্তমান সদস্যদের কাছে দুর্গোৎসবের চেয়েও বড় উৎসব। বর্তমানে পরিবারে ৬০-৭০ জন সদস্য রয়েছেন। কর্মসূত্রে বাইরে থাকায় অনেকেই পুজোর সময় আসতে পারেন না। তবে পারিবারিক এই পুজোকে ঘিরে এখনও সদস্যরা একত্রিত হন।

পরিবারের সদস্যরা জানান, সম্পূর্ণ বৈষ্ণব মতে পুজো হওয়ার দরুন কোনও বলিপ্রথা নেই। নবমীর দিন সকালে পুজো শুরু হয়। এদিন সপ্তমী, অষ্টামী ও নবমীর পুজোর পর পর করা হয়। পুজোয় একজন ব্রাহ্মণ, একজন তন্ত্র ধারক থাকেন।পুজোর দিন লুচি ভোগ দেওয়া হয়।

পরিবারের সদস্যদের মধ্যে পুজোর দায়িত্বে রয়েছেন উদয় চাঁদ বোস। তিনি বলেন, ১৩২৭ সালে প্রপিতামহ যোগীন্দ্রচন্দ্র বোস এই পুজো শুরু করে। এবছর আমাদের পুজো ১০১ বছরে পড়লো। এখন আমাদের প্রজন্মের তিনজন সদস্য রয়েছেন। বর্ধমান শহরের পারিবারিক জগদ্ধাত্রী পূজগুলোর
মধ্যে বোস বাড়ির এই পুজো দ্বিতীয়।

এই পুজোর জন্য আমরা সারা বছর অপেক্ষা করে থাকি। নবমীর দিন ধুমধাম করে পুজোর আয়োজন করা হয়। অনেক লোক সমাগম হয়। তবে করোনার কারণে গত দুবছর ধরে আয়োজনে ভাটা পড়েছে। বংশ পরম্পরায় বাড়ির এই পুজোর ঐতিহ্য পরবর্তী প্রজন্মরাও এগিয়ে নিয়ে যাবে।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

20 − three =