নিউজ ডেস্ক :: সংবাদ প্রবাহ ::কোলকাতা :: শোনা যাচ্ছে বিসিসিআইও নাকি রাহুল দ্রাবিড়কেই  কোচ হিসাবে চাইছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তিনি নিজেই রাজি হলেন না! বিসিসিআই সূত্রের খবর, ভারতীয় দলের কোচ হওয়ার প্রস্তাব সবিনয়ে প্রত্যাখ্যান করেছেন দ্রাবিড়।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর ভারতীয় টিমের হেড কোচ রবি শাস্ত্রী  দায়িত্ব ছাড়ছেন। শুধু শাস্ত্রী একা নন। সাপোর্ট স্টাফদের বেশিরভাগই আর দায়িত্বে থাকছেন না। বোলিং কোচ ভরত অরুণও জানিয়ে দিয়েছেন, তিনি দায়িত্ব ছাড়ছেন। ফিল্ডিং কোচ এস শ্রীধরও তাই। বর্তমান সাপোর্ট স্টাফদের মধ্যে একমাত্র ব্যতিক্রম বিক্রম রাঠোর। তিনি ব্যাটিং কোচ হিসাবে শুধু থেকে যাচ্ছেন।

রাঠোর ব্যাটিং কোচের দায়িত্ব নিয়েছেন বছর দেড়েক হল। ফলে রাঠোরের মেয়াদ এখনও শেষ হয়নি। রাঠোর নিজে থাকতে চান। বোর্ড সূত্রের খবর, চলতি সপ্তাহেই শাস্ত্রীর উত্তরসূরির সন্ধান শুরু করে দিচ্ছে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড। এমনকী চলতি সপ্তাহের মধ্যেই নাকি সাপোর্ট স্টাফ হওয়ার শর্তাবলিও প্রকাশ করবে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের  বিসিসিআই।

ভারতীয় দলের কোচ হিসাবে দিনকয়েক আগেই নাম ভেসে এসেছিল অনিল কুম্বলের। কিন্তু এখনও পর্যন্ত যা খবর, তাতে কুম্বলে আর কোচ হচ্ছেন না। শোনা গেল, তিনি নিজেই নাকি আগ্রহী নন। এই মুহূর্তে তিনি পাঞ্জাব কিংসের কোচ। তিনি আইপিএলেই থাকতে চাইছেন। কুম্বলের  পর রাহুল দ্রাবিড়ও জানিয়ে দিয়েছেন, তিনিও টিম ইন্ডিয়ার কোচ হতে আগ্রহী নন। বোর্ড সূত্রের খবর, তিনি এখনও সিনিয়র টিমের দায়িত্ব নিতে চান না। আপাতত জুনিয়র ক্রিকেটার তৈরি করতে চান দ্রাবিড়। ন্যাশনাল ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতে মন দিতে চান তিনি।

দ্রাবিড়ও কোচ হতে অস্বীকার করার পর বাকি দুটো নাম নিয়ে সবচেয়ে বেশি আলোচনা হচ্ছে। বীরেন্দ্র শেহবাগ  আর ভিভিএস লক্ষ্মণ। শেহবাগ এর আগেও কোচ হওয়ার ব্যাপারে প্রচণ্ড আগ্রহী ছিলেন। কিন্তু শেষ মুহূর্তে শাস্ত্রী কোচ হয়ে যান। শোনা গেল, এবারও শেহবাগ নাকি ভালরকম আগ্রহী।ভিভিএস লক্ষ্মণের ব্যাপারটা এখনও বোঝা যাচ্ছে না। এটা নিয়ে বোর্ড কর্তাদের সঙ্গে ভিভিএসের এখনও পর্যন্ত কোনও কথা হয়নি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here