নিউজ ডেস্ক :: সংবাদ প্রবাহ :: কলকাতা ::  ডলফিনপ্রেমীদের জন্য এই পৃথিবীতে একটি জায়গা আছে। সে জায়গার নাম মানকি মিয়া। অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে এটিই একমাত্র সমুদ্রসৈকত যেখানে সারাদিন ডলফিনের বিচরণ উপভোগ করা যায়। প্রায় প্রতিদিনই এখানে দর্শনার্থীরা এসে ভিড় করেন।

জনশ্রুতি আছে, ষাটের দশকে অস্ট্রেলিয়ার পশ্চিম উপকূলে অবস্থিত মানকি মিয়া সমুদ্রসৈকতে স্থানীয় জেলেরা প্রথম ডলফিন খুঁজে পায়। এরপর থেকে প্রতি বছর ডলফিন দেখতে দূর-দূরান্ত থেকে ছুটে আসেন পর্যটকরা।

অস্ট্রেলিয়ার নৌবাহিনীর গবেষকরা ১৯৮০ সালে জানান, সমুদ্রে আসা মানুষকে খেয়ে নিচ্ছে পূর্ণবয়স্ক ডলফিন। একই সঙ্গে তাদের সন্তানরা দ্রুতগতিতে বেড়ে উঠছে। এ খবর শুনে দেশটিতে ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়।

তবে এখন মানুষ অনায়াসে এ সমুদ্রসৈকতে ডলফিন দেখতে আসছেন। অনেকে সামুদ্রিক প্রাণী ডলফিনের সঙ্গে খেলা করতে ছুটে আসেন। আবার কেউ কেউ নিছক ভালোবাসার টানে চলে আসেন ডলফিনের সান্নিধ্য পেতে।