কুমার মাধব :: সংবাদ প্রবাহ :: মালদা :: বিধ্বংসী আগুনে পুড়ে ছারখার তুলার মিল সহ আশেপাশের পাঁচটি বাড়ি। মঙ্গলবার দুপুরে এ ঘটনায় চাঞ্চল্য মালদার মানিকচক থানার নুরপুর এলাকায়।স্থানীয়দের তৎপরতায় আগুন অনেকটা নিয়ন্ত্রণে আসলেও সর্বস্ব শেষ হয়ে যায় তুলোর মিলের সমস্ত সামগ্রী। দমকল সময়মতো না আসায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। শর্ট সার্কিট থেকে আগুন বলে অনুমান স্থানীয়দের।

জানা গেছে নুরপুর স্ট্যান্ড লাগোয়া একটি তুলার মিল রয়েছে,স্থানীয় বাসিন্দা মোহাম্মদ রাজু এই মিলের মালিক। রোজকার মতই তুলোর মিলে কাজ চলছিল। আর সেই সময় বিদ্যুতের শর্ট সার্কিট থেকে আগুন লাগে বলে জানাচ্ছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। মুহূর্তের মধ্যেই আগুন নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়।সর্বত্র তুলোর মিলে আগুন ছড়াতেই কয়েক লক্ষ টাকার সামগ্রিক পুড়ে ছারখার হয়ে যায়। দাও দাও করে জ্বলতে থাকে গোটা মিল।

আশেপাশের বাড়িগুলোতে ও আগুন ছড়িয়ে পড়ে। পরিস্থিতির নাগালের বাইরে যেতেই এলাকা জুড়ে চাঞ্চল্য ছড়ায়। এরপর স্থানীয় বাসিন্দারা তড়িঘড়ি আগুন নেভানোর কাজে হাত লাগায়। স্থানীয়দের তৎপরতায় এখন অনেকটা নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হলেও মিলের সর্বত্র পুড়ে ছাই হয়ে যায় বলে জানাচ্ছেন তারা।খবর পেয়ে মানিকচক থানার বিশাল পুলিশবাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছায়।স্থানীয়দের অভিযোগ, দমকল কে ফোন করা হলেও সময়মতো এসে পৌঁছতে পারেনি। ফলে দমকলের বিরুদ্ধে ক্ষোভ রয়েছে এলাকাবাসীর।

এদিকে এই ঘটনায় কয়েক লক্ষ টাকার সামগ্রী পুড়ে ছাই হয়েছে বলে জানাচ্ছেন এলাকার মানুষ। পরে দমকলের একটি ইঞ্জিন পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেএ ঘটনায় শোকের ডুবেছে তুলোর মিলের মালিক কর্তৃপক্ষ সহ আশেপাশের বসবাসকারী পরিবারগুলি। সরকারিভাবে যত তাদের সাহায্য করা হয় সেই আবেদন স্থানীয় বাসিন্দাদের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here