মালদার হরিশ্চন্দ্রপুর কনুয়ায় সোনার দোকানে দুঃসাহসিক চুরি

নিজস্ব সংবাদদাতা :: সংবাদপ্রবাহ টিভি :: ৩রা,ফেব্রুয়ারি :: মালদা :: শীতের রাত্রে দেওয়াল ফাটিয়ে সোনার দোকানে দুঃসাহসিক চুরির ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়ালো মালদার হরিশ্চন্দ্রপুর কনুয়া এলাকায়। চুরির ঘটনা ঘটায় বারবার থানায় ফোন করা হলেও আসেনি পুলিশ। পরপর চুরির ঘটনা ঘটায় পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন এলাকার ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে স্থানীয়রা।

জানা গিয়েছে,হরিশচন্দ্র পুর কনুয়া এলাকার সোনার ব্যবসায়ী নব কুমার সাহার একটি সোনার দোকান রয়েছে। গতকাল গভীর রাত্রে তার দোকানের দশ ইঞ্চির দেওয়াল ফাটিয়ে তার দোকানে ঢুকে দুষ্কৃতীরা। তারপর দীর্ঘ সময় ধরে চলে এই চুরির অপারেশন। দোকানে মজুদ থাকা রুপো চাঁদি ও সোনার গয়না নিয়ে চম্পট দেয় দুষ্কৃতীরা।

সকালে দোকানের মালিক দোকান খুলতে এসে দোকানের ভিতর ঢুকে দেখে দোকানে সমস্ত সোনা দানা চুরি গেছে। এরপর হরিশ্চন্দ্রপুর থানা খবর দেওয়া হলে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ এখনো পর্যন্ত ঘটনাস্থলে আসে নি। এরকম দুঃসাহসিক চুরির ঘটনা ঘটায় এলাকার নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

এ ব্যাপারে ওই এলাকার বাসিন্দা নব কুমার সাহা জানান, রাতে দোকান বন্ধ করে বাড়ি যাই। সকালে দোকান খুলতে এসে দেখি দোকানের পিছন দিকের দেওয়ান ফাটানো অবস্থায় পড়ে রয়েছে এবং দোকানে মজুদ থাকা সোনা চাঁদির গয়না চুরি হয়েছে। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ আনুমানিক তিন লক্ষ টাকা। এলাকায় পুলিশের নিরাপত্তার অভাব বোধ করছি আমরা। প্রশাসনের কাছে আমাদের অনুরোধ এলাকায় রাতে পুলিশি নিরাপত্তা বাড়ানো হোক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

14 + 12 =