কুমার মাধব :: সংবাদ প্রবাহ :: মালদা :: গর্ভবতী মহিলাকে মাটিতে ফেলে পেটে লাথি। তাঁর শ্বাশুড়িকে বিবস্ত্র করে মার। অভিযোগ তিন স্থানীয় তৃণমূল নেতা সহ তাঁদের অনুগামীদের বিরুদ্ধে।নির্মম এই ঘটনা মালদার গাজোলের আলালের মুড়িয়াকুন্ডু গ্রামে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় সেই গর্ভবতী মহিলা মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। মানসিক ভাবে ভেঙে পড়ার পাশাপাশি অসুস্থ মহিলার শ্বাশুড়ি। এই মুহুর্তে আতঙ্কে গ্রামছাড়া।

শুধু তাই নয়,গর্ভবতী মহিলার স্বামীর কম্পিউটারের দোকানে তালা মেরে দিয়েছে অভিযুক্তরা। বিষয়টি নিয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হয়েও কোনও ফল হয় নি অভিযোগ তাঁদের। তৃণমূলের নেতা কর্মী বলে পুলিশ তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে না। গ্রামের মোড়ল মাতব্বরদের শালিসি করার চেষ্টা হলে উলটে অভিযুক্তদেরই পক্ষ নিয়েছে তাঁরা।

নিসাদ সেলিম রেজার এমনই একটি জায়গায় ছোট কমপিউটারের দোকান, লাগোয়া বসত বাড়ি। আর সেদিকেই নজর জমি মাফিয়াদের। তাঁদের দখলে থাকা বিস্তীর্ণ এলাকায় মাঝখানে নিসাদ সেলিম রেজার দোকান বসত ভিটে হওয়ায় তাঁদের জমি প্লট করে ব্যবসা করতে সমস্যা হচ্ছে। এরপরই জমি মাফিয়া তথা স্থানীয় তৃণমূল নেতা কর্মীরা অন্যত্র সরে যেতে বলে কিছু টাকার বিনিময়ে। কিন্তু নিসাদ রাজি না হওয়ায় তাঁর ওপর হামলা চলে।এরপরে নিসাদ পুলিশে অভিযোগ জানানোর পরে হুমকির মাত্রা বাড়তে থাকে। সেদিন নিসাদ বাড়িতে ছিলেন না। ঘরে বিধবা মা এবং ২১ বছরের স্ত্রী ছিলেন।

নিসাদ সেলিম রেজা এসে তাঁদের প্রথমে স্থানীয় হাসপাতাল পরে মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসে। গাজোল থানায় অভিযোগ জানিয়েও কেউ গ্রেফতার হয়নি বলে অভিযোগ। উল্টে নিজেরাই এখন মালদা শহরে হাসপাতাল চত্বরে রয়েছেন।আতঙ্কে ঢুকতে পারছেন না গ্রামে। যদিও দলের তরফে অভিযুক্ত তৃণমূল নেতাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে তৃণমূল জেলা সভাপতি আব্দুর রহিম বক্সি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here