কুমার মাধব :: সংবাদ প্রবাহ :: মালদা :: অবৈধ সম্পর্কের অভিযোগ তুলে বিবাদ। দড়ি গলায় পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে খুনের অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধে। খুনের কথা ফাঁস করল দম্পতির তিন বছরের সন্তান।আটক স্বামী-সহ শাশুড়ি। পলাতক শ্বশুর। শনিবার সকালে শোবার ঘর থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় ওই গৃহবধূর দেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

ঘটনাটি ঘটেছে মালদা জেলার হরিশ্চন্দ্রপুর থানা এলাকার সোনাকুল গ্রামে। মৃত গৃহবধূর পরিবারের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে অভিযুক্ত স্বামী রবিউল ইসলাম এবং শাশুড়ি আনোয়ারা বিবিকে আটক করেছে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ। পাশাপাশি মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানোর ব্যবস্থা করেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত গৃহবধূর নাম মাসতারা খাতুন (২৮)। তার দুই নাবালক পুত্র সন্তান রয়েছে। গত পাঁচ বছর আগে মাসতারা খাতুনের সঙ্গে সোনাকুল গ্রামের বাসিন্দা রবিউল ইসলামের বিয়ে হয়। কিন্তু বিয়ের পর থেকেই পণের দাবিতে নানাভাবে অত্যাচার চালাচ্ছিল স্বামী-সহ শ্বশুরবাড়ির লোকেরা।

এদিন সকালে ওই গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যুর খবর পেয়ে বাড়ির লোকেরা ছুটি আসে। এরপরে পরিবারের তরফ থেকে মাসতারা খাতুনকে শ্বাসরোধ করে খুন করার পর ঘরের সিলিং ফ্যানে ঝুলিয়ে দেওয়ার অভিযোগ দায়ের হয়েছে।

হরিশ্চন্দ্রপুর থানার আইসি সঞ্জয় কুমার দাস জানিয়েছেন অভিযোগ পেয়েছি,পুরো ঘটনাটি নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ, স্বামী-সহ শাশুড়িকে আটক করা হয়েছে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য, ঘটনার তদন্ত চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here