কুমার মাধব :: সংবাদ প্রবাহ :: মালদা :: বাঁশের সাকোর উপর দিয়ে চলছে ঝুকিপূর্ণ চলাচল। কয়েকশ পরিবার এটাই হচ্ছে যাতায়াতের একমাত্র পথ। অথচ এই রাস্তার জন্য বরাদ্দ হয়েছে অর্থ। কিন্তু রাস্তার কাজ আর হয়নি। কিন্তু সেই কাজ দেখিয়ে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছে শাসক দল। অভিযোগ রাস্তার কাজ না করে ভুয়ো মাস্টাররোল দিয়ে টাকা উঠিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠল এবারে শাসকদলের পঞ্চায়েত সমিতির বিরুদ্ধে।

অভিযোগটি উঠেছে মালদা জেলার হরিশ্চন্দ্রপুর ২ নম্বর ব্লক এলাকার ইসলামপুর গ্রাম পঞ্চায়েতে। অভিযোগ এলাকার ইমামনগর থেকে খোপাকাঠির মধ্যে তিনটি রাস্তা নিয়ে এলাকার বাসিন্দারা অভিযোগ করেছেন। তারা সরাসরি বিডিও-সহ বিভিন্ন প্রশাসনিক কর্তাদের কাছে অভিযোগ জানিয়েছে।

অভিযোগকে ভিত্তিহীন বলেছেন ওই এলাকার হরিশ্চন্দ্রপুর ২ নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ সাকিনা বিবির স্বামী তথা তৃণমূল অঞ্চল সভাপতি জাকির হোসেন। তার সাফ কথা, কাজ এখনো শেষ হয়নি। বন্যার জল শুকালে বাকি কাজ করে দেওয়া হবে।

নিজের স্বার্থের জন্য সেই ব্যক্তি এগুলো অভিযোগ করেছে, সমস্ত অভিযোগ ভিত্তিহীন। এ প্রসঙ্গে হরিশ্চন্দ্রপুর ২ নম্বর ব্লকের সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক বিজয় গিরি জানান বিষয়টি আমার জানা ছিল না। ওই কাজে কোনো অনিয়ম হয়ে থাকলে অবশ্যই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।