উদয় ঘোষ :: সংবাদ প্রবাহ :: বর্ধমান :: রায়না থানার বড়ুলে সেচ খালের পাশ থেকে এক মহিলার ঝুলন্ত দেহ উদ্ধারকে কেন্দ্র করে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। সোমবার সন্ধ্যায় সেচখালের পাশে গাছের ডালে পরনের কাপড় দিয়ে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় তাঁকে ঝুলতে দেখেন স্থানীয় বাসিন্দারা। খবর পেয়ে পুলিস দেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তে পাঠায়। মৃতার নাম চম্পারাণি মালিক (৩৭)। জামালপুর থানার রামনাথপুরে তাঁর বাড়ি।

ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বড়ুলের এক যুবকের সঙ্গে তিনি পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন। দিন দু’য়েক আগে তিনি শ্বশুরবাড়ি ছেড়ে যুবকের বাড়িতে চলে আসেন। যদিও যুবকের পরিবার তা মেনে নেয়নি। এনিয়ে তাঁর সঙ্গে যুবকের পরিবারের লোকজনের অশান্তি হয়। ঘটনার দিন বাড়ি ফেরার কথা বলে তিনি যুবকের ঘর থেকে বের হন। তারপর তাঁর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। বিচ্ছেদ মেনে নিতে না পেরে তিনি আত্মঘাতী হয়েছেন বলে প্রাথমিকভাবে পুলিসের অনুমান।

যদিও পরিবারের লোকজন আত্মহত্যার কথা মানতে চায়নি। তাঁকে খুন করা হয়েছে বলে পরিবারের অভিযোগ। মৃতার দেওর বিকাশ মালিক বলেন, বৌদি দু’দিন আগে ঘর থেকে বের হন। তারপর থেকে তাঁর হদিশ মিলছিল না। জামালপুর থানায় ডায়েরি করতে যাই। থানা থেকে বৌদির ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হওয়ার কথা জানানো হয়। বৌদিকে খুন করা হয়ে থাকতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here