নিউজ ডেস্ক :: সংবাদ প্রবাহ :: নয়াদিল্লি :: পাকিস্তানের বিরুদ্ধে হারের পর সমালোচিত হয়েছিলেন ভারতীয় বোলার মোহাম্মদ শামি। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ম্যাচের আগে শামির পাশে দাঁড়িয়ে সমালোচকদের কড়া বার্তা দিয়েছিলেন বিরাট কোহলি। এ কারণে তার ১০ মাসের মেয়েকে ধর্ষণের হুমকি দেওয়া হয়েছে। সোমবার জানা গেছে, অত্যন্ত নিন্দনীয় এই কাজের পেছনে রয়েছে এক দক্ষিণপন্থি ভারতীয় টুইটার ব্যবহারকারী।খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

গত শনিবার সংবাদ সম্মেলনে শামির সমালোচকদের দ্ব্যর্থহীন ভাষায় সমালোচনা করেছিলেন কোহলি। বলেছিলেন, ধর্ম নিয়ে কাউকে এ রকম আক্রমণ করা মানবিকতার সব থেকে নিচু স্তর। সাফ জানিয়েছিলেন, এ ধরনের জিনিস কোনো দিন বরদাস্ত করা হবে না।

এর পরই গত ৩০ অক্টোবর রাত ১১টা ৫৫ মিনিটে আমেনা নামে এক আইডি থেকে টুইট করে কোহলির মেয়ে ভামিকাকে ধর্ষণের হুমকি দেওয়া হয়।কোহলি সমর্থকরা সঙ্গে সঙ্গে একযোগে সেই টুইটের তীব্র নিন্দা করতে থাকেন। অনেকে বলতে থাকেন, এই টুইট পাকিস্তানের কোনো ব্যক্তির করা। কারণ সেই অ্যাকাউন্টে পাকিস্তানের জার্সি পরা এক নারী ক্রিকেটারের ছবি দেওয়া রয়েছে।

কিন্তু সোমবার ‘বুম’ নামে একটি ওয়েবসাইট দাবি করেছে, তেলুগুভাষী দক্ষিণী কোনো ব্যক্তির করা এই টুইট, যে আগে অন্য একটি নাম ব্যবহার করে টুইট করত। কিছুক্ষণ পরেই অবশ্য টুইটটি মুছে ফেলা হয়। ওই ব্যবহারকারীর বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে কিনা, তা নিয়ে টুইটারের পক্ষ থেকে কোনো উত্তর মেলেনি। তবে মনে করা হচ্ছে, ওই ব্যক্তি তেলেঙ্গানা বা হায়দরাবাদের বাসিন্দা।

ওই টুইটার প্রোফাইল থেকে তেলুগু ভাষায় একাধিক টুইট রয়েছে। শুধু তাই নয়, দক্ষিণপন্থি একাধিক পোস্ট রিটুইট করা হয়েছে ওই অ্যাকাউন্ট থেকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here