উদয় ঘোষ :: সংবাদ প্রবাহ :: বর্ধমান :: শিশুদের জ্বর এবং শ্বাসকষ্ট নিয়ে উদ্বেগ কাটছে না। প্রতিদিনই বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে শিশু ভর্তির চাপ বাড়ছে। চলতি মাসে ইতিমধ্যেই ন’টি শিশু মারা গিয়েছে। সবথেকে খারাপ অবস্থা ছ’মাসের নীচের শিশুদের। বর্ধমান হাসপাতালে মারা যাওয়া ন’টি শিশুর প্রত্যেকের বয়সই ছ’মাসের নীচে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় আরও একটি এআরআই(অ্যাকিউট রেসপিরেটরি ইনফেকশন) ওয়ার্ড খোলা হচ্ছে বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে।বেশ কয়েকমাস ধরেই শিশুদের জ্বর ও শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা নিয়ে রাজ্যজুড়ে আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি হয়েছে। বর্ধমান হাসপাতালেও প্রতিদিন পাল্লা দিয়ে বাড়ছে শিশু ভর্তির সংখ্যা। ১২০ শয্যার জেনারেল ওয়ার্ড ছাড়াও হাসপাতালে খোলা হয়েছে ৬৫ শয্যার এআরআই ওয়ার্ড। বুধবার পর্যন্ত হাসপাতালে শিশু ভর্তির সংখ্যা প্রায় ১৩০৷ যার মধ্যে অর্ধেকের বয়স ছ’মাসের নীচে৷

হাসপাতালের শিশু বিভাগ সূত্রে জানা গিয়েছে, জ্বর, শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা নিয়ে সবথেকে সমস্যায় সদ্যোজাত শিশুরা। যে ন’টি শিশু মারা গিয়েছে তাদের প্রত্যেকেরই বয়স ছ’মাসের নীচে। শিশু বিভাগের এক চিকিৎসক বলেন, সদ্যোজাত শিশুরা সাধারণ ঠান্ডা লাগার উপসর্গ নিয়ে ভর্তি হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে শ্বাসকষ্ট শুরু হচ্ছে এবং জটিল আকার ধারণ করছে।

যদিও পরিস্থিতি আয়ত্তের মধ্যেই রয়েছে বলে দাবি শিশু বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডাঃ কৌস্তভ নায়েকের। তিনি বলেন, চলতি মাসে প্রায় ১০০০টি শিশু ভর্তি হয়েছিল। ন’জনকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি। বাকিরা সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে। ওষুধ, অক্সিজেন, বেড পর্যাপ্ত পরিমাণে রয়েছে। আরও একটি ওয়ার্ড খোলা হচ্ছে। আশা করি সমস্যা হবে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here