শুভেন্দু অধিকারী নাম না করে তাকে কুলাঙ্গার ও কুসন্তান বলে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন তৃনমূল নেতা সুপ্রকাশ গিরি

নিজস্ব সংবাদদাতা :: সংবাদ প্রবাহ :: কাঁথি :: কাঁথি সাংগঠনিক জেলার যুব তৃনমূলের সভাপতি সুপ্রকাশ গিরি রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী নাম না করে কুলাঙ্গার ও কুসন্তান বলে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন। যুবনেতা এই মন্তব্যের পর কাঁথি নয় পূর্ব মেদিনীপুরে রাজনৈতিক মহলে ব্যাপক শোরগোল পড়েছে।

২০ শে ডিসেম্বর ডিজে বাজিয়ে উচ্ছ্বাস দিবস পালন করবে। যুবনেতা এই বক্তব্যের পর উৎফুল্ল তৃণমূল কর্মী সমর্থকরা। যদিও এই বক্তব্যের কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর ।

১৯ শে ডিসেম্বর ২০২০ বাংলা একটা প্রবাদ আছে আপদ বিদায়। সেই জায়গায় নাম দিয়েছি উচ্ছ্বাস দিবস। তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা ডিজে বাজিয়ে উচ্ছ্বাস দিবস পালন করবে। যুব তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা ডিজে বাজিয়ে নাচতে নাচতে উচ্ছ্বাস দিবস পালন করবে। কারণ কাঁথি থেকে আপদ বিদায় হয়েছে, উচ্ছ্বাস হবে আনন্দ করবে ?

২০ শে ডিসেম্বর কাঁথির মেচেদা বাইপাস থেকে নাচতে নাচতে কাঁথি কলেজ মাঠে শেষ হবে। এরপর সন্ধ্যাবেলা আতশ বাজি ফাটিয়ে উল্লাস করা হবে। সেদিন তৃণমূল যুব কংগ্রেস ও সংখ্যালঘু সেলের আয়োজনে উচ্ছাস দিবস ও সঙ্গতি যাত্রা পালন হবে।

কাঁথি সাংষদ শিশির অধিকারী কটাক্ষ করেন তৃনমূল যুব নেতা সুপ্রকাশ গিরি। তিনি বলেন ” অনেক পিতা চান তার সন্তানের উন্নতি হোক? সবাইতো উন্নতি দেখতে চান? ছেলেরা উন্নতি করছে? কিন্তু একজন পিতা আছেন অনেকদিন উন্নতি দেখেছেন? এবার প্রতন দেখা শুরু হয়েছে? একজনের পতন হয়েছে? আগামী পৌরসভায় আরেকজনের পতন করে দিতে হবে? সেটা আমাদের সংকল্প নিতে হবে?

অধিকারী পরিবারের একাধিক দুর্নীতির কথা সামনে আনলেন তৃণমূল নেতা সুপ্রকাশ গিরি। তিনি বলেন ” অধিকারী পরিবার একাধিক সিনেমা হল বিক্রি করে দিয়েছে। পাশের একটা মল্লিকা সিনেমা হল ছিল, কত টাকা নিয়ে সেই সিনেমা হলটি ভেঙ্গে মাল্টি বিল্ডিং করেছেন। তিনি বলেন, বিজেপির মিছিলে খোল কীর্তন যাচ্ছে?খোল কীর্তন কখন যায় ? বিজেপির শেষ যাত্রা শুরু হয়ে গিয়েছে?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

12 − five =