দলের রাজ্য নেতৃত্বের তরফে অস্বীকার করা হলেও, বিজেপিতে  টাকা ও নারীর ব্যবহার নিয়ে নিজের অবস্থানে অনড় প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি তথাগত রায় । এদিন সকালে তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় একাধিক পোস্ট করেছেন। সেখানে তিনি আবারও মমতার বন্দ্যোপাধ্যায়ের  কড়া সমালোচনা করে শুভেন্দু অধিকারীর  প্রশংসা করেছেন।দলের রাজ্য নেতৃত্বের তরফে অস্বীকার করা হলেও, বিজেপিতে  টাকা ও নারীর ব্যবহার নিয়ে নিজের অবস্থানে অনড় প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি তথাগত রায়  । এদিন সকালে তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় একাধিক পোস্ট করেছেন। সেখানে তিনি আবারও মমতার বন্দ্যোপাধ্যায়ের  কড়া সমালোচনা করে শুভেন্দু অধিকারীর  প্রশংসা করেছেন।

প্রথম তিনি সরব হয়েছিল দলে অভিনেত্রীদের যোগদান নিয়ে। নিশানা করেছিলেন দিলীপ ঘোষ, কৈলাশ বিজয়বর্গীয়কে। শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়ের মতো অভিনেত্রীরা দল ছাড়ার কথা জানাতেই তিনি দলের প্রতি আক্রমণ আরও বাড়িয়ে দেন। অভিযোগ করেন দলে টাকাও ও নারী নিয়ে কাজ চলছে। এব্যাপারে অনেকেই তাঁকে বলেছেন দলের ভিতরে অভিযোগ করতে।

যা নিয়ে এদিন সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে তিনি বলেছেন, ‘বিজেপির শুভানুধ্যায়ীরা বলছেন, টাকা ও নারী নিয়ে আমার অভিযোগ প্রকাশ্যে নয়, দলের ভিতরে করা উচিত। আমি সবিনয়ে জানাই, সে সময় পেরিয়ে গেছে। বিজেপি আমাকে যা ইচ্ছে তাই করতে পারে। কিন্তু নিজেদের চালচলন যদি আমূল সংস্কার না করে তা হলে পশ্চিমবঙ্গে দলের বিলুপ্তি অবশ্যম্ভাবী।’

বিএসএফ-এর কাজের পরিধি বৃদ্ধি নিয়ে বিধানসভা হওয়া আলোচনায় অশীল শব্দ প্রয়োগ করে এর বিরোধিতা করেছেন দিনহাটার তৃণমূল সাংসদ উদয়ন গুহ। যা নিয়ে প্রতিবাদ করেছেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী থেকে অধীর চৌধুরীর মতো নেতারা। শুভেন্দু অধিকারী প্রশ্ন করেছেন, পশ্চিমবঙ্গ কি আলাদা দেশ। এব্যাপারে মন্তব্য করতে গিয়ে তথাগত রায় বলেছেন,’ পেরেকের ঠিক জায়গায় ঘা মেরেছেন শুভেন্দু। এটা মাননীয়ার magnificent obsession, Prime Minister of Republic of Bengal।চটিচাটা বিধায়করা তাতে সুড়সুড়ি দিয়ে মন্ত্রী হবার চেষ্টা করছেন।’

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here