নিজস্ব সংবাদদাতা :: সংবাদ প্রবাহ :: তমলুক :: “ভাইয়ের কপালে দিলাম ফোঁটা – যমের দুয়ারে পড়লো কাঁটা” যুগ যুগ ধরে এই বাণীকে পাথেয় করে বোন -দিদি কিংবা দাদা – ভাইয়েরা অপেক্ষায় থাকেন এই দিনটির জন্য। রজ্যের অন্যতম ব্যাস্ততম মন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র। সদা ব্যাস্ততার মাঝে রাজ্যের অন্যতম সেচ ও জলপথ দপ্তরের মন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র তাঁর ৮০ উর্ধ দিদি অশ্রুকণা ভট্টাচার্যের আর্শীবাদ নিতে ভুলেননি।

শনিবার অন্যান্য বোনেদের পাশাপাশি তনলুকের যোগীক্ষোপ এলাকায় বড়দিদির হাত থেকে ফোঁটা নেওয়ার পাশাপাশি ভক্তিভরে আর্শীবাদ গ্রহন করেন। তাবে ভাই রাজ্যের মন্ত্রী হয়ে ব্যাস্ততার মাঝেও ফোঁটা নিতে আসায় ভীষন খুশি হয়েছেন দিদি। ভাইকে কাছে পেয়ে বেজায় খুশি হন অশ্রুকণাদেবি।

দিদির কথামতো দিদির সাথে বসে খাওয়াদাওয়াও সারেন মন্ত্রী। মন্ত্রী জানান, ব্যাস্ততার মাঝেও এই দিনটির জন্য অপেক্ষা করে থাকি। বাকি দিনগুলিতে পারিবারিক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহনের সেইভাবে সুযোগ পাওয়া না গেলেও এই দিনটির জন্য অপেক্ষায় থাকি। দিদির আর্শীবাদ আর বোনেদের ভালোবাসায় সারা বছর কাজ করার শক্তি পাই। এইভাবে দিদিদের আর্শীবাদ ও বোনেদের ভালোবাসায় দিনগুলি কাটাতে চাই।।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here