সুন্দরবনের লোকালয়ে বিরল প্রজাতির পাখি উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য

সুদেষ্ণা মন্ডল :: সংবাদ প্রবাহ :: সুন্দরবন :: বিরল প্রজাতির পাখি উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার সুন্দরবনের বিচ্ছিন্ন দ্বীপ পাথরপ্রতিমার দুর্গাপুরের রথতলা এলাকায়। এই এলাকায় ময়ূরের মতো দেখতে একটি পাখিকে হটাৎ দেখতে পাওয়া যায়। গ্রামবাসীরা বিরল প্রজাতির পাখিটিকে উদ্ধার করে।খবর দেওয়া হয় বনবিভাগের কর্মীদের । বনকর্মীরা এসে পাখিটিকে উদ্ধার করে। প্রাথমিক ভাবে পাখিটিকে দেখে ছোট ময়ূর মনে হলেও, পরে জানা যায় তা আসলে বেগুনি কালেম বা ‘পার্পল সোয়াম্প হেন’।

মূলত এই ধরনের বিশেষ প্রজাতির পাখি বাংলার দু একটি বড় জলাশয়ে দেখা মেলে। এই প্রজাতির পাখির বাস ভারত, বাংলাদেশ ছাড়াও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, আফ্রিকা এবং ইওরোপের বিভিন্ন দেশে । সারা পৃথিবীতে প্রায় ১ কোটি ৮৪ লক্ষ বর্গ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে এদের আবাস। সেই পাখিই দেখতে পাওয়া যায় পাথরপ্রতিমার দুর্গাপুরের রথতলায় ।

বনবিভাগ সূত্রে জানা গিয়েছে, পাথরপ্রতিমার দক্ষিণ দুর্গাপুরের এক ব্যবসায়ী পণ্যবাহী গাড়ি চড়ে কলকাতা থেকে গ্রামে ফিরছিলেন। ওই গাড়ির উপরে ওই পাখিটি দেখতে পান স্থানীয় বাসিন্দারা। এত রংচঙে পাখি আগে কখনও দেখেননি অনেকেই। ফলে সেটা ময়ূর কিনা তা নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয়ে যায়।

খবর চাউর হতেই স্থানীয় বাসিন্দাদের অনেকে ভিড় জমান সেই পাখি দেখতে। খবর দেওয়া হয় বনকর্মীদের। বনকর্মীরা পাখিটি উদ্ধার করে রামগঙ্গা রেঞ্জ অফিসে নিয়ে যান । কয়েক দিনের মধ্যেই কালেম পাখিটিকে জলাশয়ে ছেড়ে দেওয়া হবে। এ বিষয়ে জেলার বিভাগীয় বনাধিকারিক (ডিএফও) মিলন মণ্ডল বলেন, ‘‘বাংলার কিছু জায়গাতে দেখা মেলে এই পাখির। এই পাখি সুন্দরবনের বাসিন্দা না হলেও দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিভিন্ন জায়গায় এদের দেখা পাওয়া যায়। পাখিটির বর্তমান ঠিকানা হতে চলেছে আলিপুর চিড়িয়াখানা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

sixteen − eight =