নিউজ ডেস্ক :: সংবাদ প্রবাহ ::নয়াদিল্লি :: তামিলনাড়ুর নীলগিরি পাহাড়ে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে নিহত সেনা সর্বাধিনায়ক বিপিন রাওয়াত এবং তার সঙ্গীদের মরদেহ নিয়ে যাওয়ার সময় দুর্ঘটনার মুখে পড়েছিলো অ্যাম্বুল্যান্স। যদিও এর ফলে বড় ধরনের কোনও বিপত্তি হয়নি।বৃহস্পতিবার (০৯ ডিসেম্বর) দুপুরের দিকে কুন্নুরের ওয়েলিংটনের ডিফেন্স সার্ভিসেস স্টাফ কলেজের মাদ্রাজ রেজিমেন্টাল সেন্টার হাসপাতাল থেকে জেনারেল রাওয়াত, তার স্ত্রী মধুলিকাসহ ১৩ জনের মরদেহ সুলুরের বিমান বাহিনী ঘাঁটিতে নেওয়া হচ্ছিল। সেখানে থেকে বিশেষ বিমানে দিল্লিতে মরদেহ পাঠানোর ব্যবস্থাও প্রস্তুত রাখা হয়েছিল।

স্থানীয় সূত্রের খবর, কোয়ম্বত্তূরের অদূরে মেট্টুপলায়মের কাছে কনভয়ের একটি অ্যাম্বুল্যান্স ‘ছোট দুর্ঘটনার’ কবলে পড়ে। নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পাহাড়ের দেওয়ালে ধাক্কা মারেন গাড়ির চালক। এতে রাস্তার নিরাপত্তার দায়িত্ব থাকা পুলিশ সদস্যসহ কয়েক জন আহত হয়েছেন।
দ্রুত দুর্ঘটনাগ্রস্ত অ্যাম্বুল্যান্স থেকে মরদেহগুলো অন্য একটি গাড়িতে তোলা হয়। শুক্রবার প্রচারিত একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, যাত্রাপথের বিভিন্ন স্থানে স্থানীয়রা ফুল নিয়ে দাঁড়িয়েছিলেন। তারা রাওয়াতসহ নিহত সেনা সদস্যদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে স্লোগান দিচ্ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here