স্কুলে স্যানিটাইজার ট্যানেল বসানোকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষে চার তৃণমূল কর্মী জখম

উদয় ঘোষ :: সংবাদ প্রবাহ :: বর্ধমান :: স্কুলে স্যানিটাইজার ট্যানেল বসানোকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষে চার তৃণমূল কর্মী জখম হয়েছেন। টলিউডের নায়িকা শুভ্রশ্রীর বাবা দেবপ্রসাদ গঙ্গোপাধ্যায়কে হেনস্তার অভিযোগ ওঠে বর্ধমান পুরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের প্রাক্তন কাউন্সিলার মহম্মদ আলি ও তাঁর সহযোগীদের বিরুদ্ধে।

ঘটনার সূত্রপাত সোমবার সকালে। দেবপ্রসাদবাবুর শ্যালিকা অনাবাসী ভারতীয় অনিতা গাটকারি স্থানীয় দু’টি স্কুলে স্যানিটাইজার ট্যানেল দেওয়া জন্য মনস্থির করেন। সেইমতো দেবপ্রসাদবাবু বর্ধমান শহরের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের বর্ধমান দুবরাজদিঘি হাইস্কুল ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডের রেলওয়ে বিদ্যাপীঠ স্কুলে যোগাযোগ করেন। দেবপ্রসাদবাবুর দাবি, স্কুলের প্রধান শিক্ষকের অনুমতি নিয়েই তাঁর শ্যালিকা ও কয়েকজনকে সঙ্গে নিয়ে সোমবার সকালে দুবরাজদিঘি হাইস্কুলে স্যানিটাইজার ট্যানেল লাগাতে যান।

অভিযোগ, সেই সময় ৪ নম্বর ওয়ার্ডের প্রাক্তন কাউন্সিলার মহম্মদ আলি ও তাঁর ভাইপো তৃণমূল কংগ্রেসের যুবনেতা নুরুল আলম তাঁদের স্যানিটাইজার ট্যানেল লাগাতে বাধা দেন। মহম্মদ আলি ও নুরুল আলমের নেতৃত্বে একদল তৃণমূল কর্মী তাঁদের উপর চড়াও হয়। হাতে বন্দুক, লাঠি ও রড নিয়ে তাঁদের উপর আক্রমণ চালানো হয় বলে অভিযোগ করেন দেবপ্রসাদবাবু।

দেবপ্রসাদবাবুর সঙ্গে থাকা শেখ হায়দার আলি, শেখ খোকন, শশীরাম ও গোবিন্দা মাল নামে চার তৃণমূল কর্মী আহত হন। স্যানিটাইজার ট্যানেলটিও ক্ষতিগ্রস্ত করা হয় বলে অভিযোগ। এবিষয়ে দেবপ্রসাদবাবু বলেন, দলের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষর কাছে অভিযোগ জানিয়েছি।

এই স্কুলের প্রধান শিক্ষক নবকুমার মালিক বলেন, দেবপ্রসাদবাবু আমার কাছে স্যানিটাইজার ট্যানেল লাগানোর জন্য লিখিত আবেদন করেছিলেন। ছাত্রছাত্রীদের স্বার্থে আমি ওঁকে এটি করতে বলেছিলাম। যেটা ঘটল সেটা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক। এবিষয়ে রাজ্য তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র দেবু টুডু বলেন, কী হয়েছে জানি না। খোঁজ নিয়ে দেখতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *