হরিশ্চন্দ্রপুর থানার উদ্যোগে ২৫০ জন গাড়ি চালকের চক্ষু পরীক্ষা করা হয় বিনামূল্যে

কুমার মাধব :: সংবাদ প্রবাহ :: মালদা :: গাড়ির চালকদের সতর্কতা এবং সচেতন করার জন্য রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে ক্রমাগত সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ ক্যাম্পেইন চালানো হয়। তারই অঙ্গ হিসাবে মালদা জেলা পুলিশের উদ্যোগে সারা মাস জুড়ে বিভিন্ন কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। সেই কর্মসূচি অনুযায়ী এদিন হরিশ্চন্দ্রপুর থানার উদ্যোগে একটি বিনামূল্যে চক্ষু পরীক্ষা শিবিরের আয়োজন করা হয়।সেখানে এলাকার প্রায় ২০০ থেকে ২৫০ গাড়ির চালক নিজেদের চক্ষু পরীক্ষা করান। গাড়ি চালানোর জন্য চোখ ঠিক রাখা অত্যন্ত আবশ্যক। এদিকে দৈনন্দিন গাড়ি চালাতে গিয়ে গাড়ির চালকদের চোখে ধুলো, বালি পড়ে। ফলে চোখের বিভিন্ন সমস্যা হওয়ার সম্ভাবনা থেকে যায়। কিন্তু সময়ের অভাবে বা অনেক সময় আর্থিক কারণে গাড়ির চালকরা সঠিক ভাবে চোখের চিকিৎসা করাতে পারেন না। চোখের সমস্যা নিয়ে গাড়ি চালাতে গেলে ঘটতে পারে দুর্ঘটনা। সেই কথা মাথায় রেখেই এই শিবিরের আয়োজন।

বিনামূল্যে চক্ষু পরীক্ষা করাতে পেরে খুশি গাড়ির চালকরা। পুলিশের এই উদ্যোগকে তারা কুর্নিশ জানিয়েছেন। এদিকে উত্তরবঙ্গ সফরে এসে বুধবার মালদা জেলার প্রশাসনিক বৈঠক রয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির। যিনি মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে রাজ্যের পুলিশ মন্ত্রী। হরিশচন্দ্রপুর পুলিশের পক্ষ থেকে নেওয়া হল এই উদ্যোগ। যে উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাচ্ছে সকলে।

গাড়ির চালকদের চেইন মাস্টার রতন কুমার দাস বলেন,” আমরা প্রত্যেকে খুব খুশি। পুলিশের পক্ষ থেকে যে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে তাতে আমাদের অনেক সাহায্য হল। আমরা বিনামূল্যে নিজেদের চোখ পরীক্ষা করাতে পারলাম। এই ভাবে পুলিশ প্রশাসন আমাদের পাশে থাকুক এটাই চাই।”

হরিশ্চন্দ্রপুর থানার সাব ইন্সপেক্টর রাম প্রসাদ চাকলাদার বলেন,” সারা মাস জুড়ে মালদা জেলা পুলিশের উদ্যোগে সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ ক্যাম্পেন চালানোর জন্য বিভিন্ন কর্মসূচির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তার অঙ্গ হিসেবে এদিনের চক্ষু পরীক্ষা শিবির। সাথে গাড়ির চালকদের গাড়ি চালানো নিয়ে সতর্ক এবং সচেতন করা হয়েছে। ভবিষ্যতেও সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ চালানোর জন্য বিভিন্ন কর্মসূচির উদ্যোগ নেওয়া হবে।”

রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে বেশ কিছু বছর আগে দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণের জন্য এই ক্যাম্পেইন শুরু করা হয়। যাতে গাড়ির চালকরা সতর্কতা এবং সচেতন ভাবে গাড়ি চালান। দুর্ঘটনা কমানো যায়। ক্রমাগত পুলিশের পক্ষ থেকে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে এই ক্যাম্পেইন চালানো হচ্ছে। মনে করা হচ্ছে কিছুটা হলেও নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে দুর্ঘটনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two × five =