হাবড়ায় চাঁদার অত্যাচারে আহত ফুচকা ব্যবসায়ী

নিউজ ডেস্ক :: সংবাদ :: উত্তর 24 পরগনা : : ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর 24 পরগনার হাবরা পৌরসভার 12 নম্বর ওয়ার্ড আক্রামপুর আদর্শ পল্লী এলাকায়। স্থানীয় সূত্রে জানা যায় বিদ্যুৎ বাইন নামে এক ফুচকা ব্যবসায়ী দীর্ঘদিন ধরে আক্রামপুর স্কুল মাঠ এলাকায় ফুচকা বিক্রি করে। ঠিক তার পাশেই রয়েছে আক্রামপুর শ্মশান। এই শ্মশানে প্রতিবছর কালী পুজো হয়। এই কালী পূজার চাঁদা নিয়েই শুরু হয় বচসা। স্থানীয় যুবক সুজিত সর্দার হাবরা থানার টেম্পোরারি ট্রাফিক হোম গার্ড তে কর্মরত।

গতকাল কালীপুজোয় ডিউটি না থাকার কারণে পুজো কমিটির চাঁদা কালেকশন তখন বিদ্যুৎ বাইন নামে এই ফুচকা বিক্রেতার আক্রামপুর স্কুলের সামনে ফুচকা বিক্রি করছিলেন ।তখন সুজিত সর্দার সহ আরো কিছু যুবক তার কাছে পূজার চাঁদা চায়। কিন্তু বিদ্যুৎ বাইন ১০০টাকা চাঁদা দেয় ।সুজিত সর্দার তাদেরকে ৫০০ টাকা দিতে হবে, এমনটাই দাবি করে এর পরে ফুচকা ব্যবসায়ীকে মারধর করে।

কালীপুজোর চাঁদা নিয়ে জোর-জুলুম ও মারধর আহত ফুচকা ব্যবসায়ী। অভিযোগের তীর উঠেছে হাবড়া থানার টেম্পোরারি এক ট্রাফিক হোম গার্ডের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর 24 পরগনার হাবরা পৌরসভার 12 নম্বর ওয়ার্ড আক্রামপুর আদর্শ পল্লী এলাকায়।

প্রাক্তন কাউন্সিলর রুমা চ্যাটার্জী জানায়, “এরকম একটা ঘটনা যদি ঘটে থাকে প্রশাসন প্রশাসনের কাজ করবে, তবে সে যতই প্রশাসনের সঙ্গে যুক্ত থাকুক না কেন ।আইন আইনের পথে চলবে।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × 4 =