নিউজ ডেস্ক :: সংবাদ প্রবাহ :: নয়াদিল্লি :: দিল্লি পুলিশের এক কর্মকর্তা শুক্রবার জানিয়েছেন, দিল্লির সর্বভারতীয় মেডিকেল সায়েন্স ইনস্টিটিউটের এক ডাক্তার তাঁর সহকর্মী এক মহিলাকে ধর্ষণ করেছে। এবং অভিযোগ দায়ের হওয়ার পর থেকেই সে পলাতক।

ডেপুটি পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) বেনিতা মেরি জাইকার জানান, দিল্লি এইমসে যৌন নির্যাতনের বিষয়টি সোমবার পুলিশকে জানানো হয়েছে। নিগৃহীতা ডাক্তার তরুণী তদন্তকারীদের বলেছেন যে তার এক সিনিয়র সহকর্মী ২৬ সেপ্টেম্বর তাঁকে ধর্ষণ করে। তরুণী সেদিন অন্য সহকর্মীর জন্মদিন উদযাপন করতে গিয়েছিল। তার বক্তব্যের উপর ভিত্তি করে, হৌজ খাস থানায় আইপিসি (ভারতীয় দণ্ডবিধি) এর ধারা ৩৭৬ (ধর্ষণ) এবং ৩৭৭  এর অধীনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

পুলিশ আধিকারিক আরও জানিয়েছেন তদন্ত শুরু হয়েছে। ম্যাজিস্ট্রেটের সামনে ডাক্তারের বক্তব্য রেকর্ড করা হয়েছে এবং অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারে অভিযান চালানো হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, যত তাড়াতাড়ি সম্ভব অভিযুক্তদের খুঁজে বের করতে প্রযুক্তিগত নজরদারি শুরু হয়েছে। পুলিশ সূত্রের খবর নিগৃহীতা অভিযুক্তের আমন্ত্রণে তাঁর জন্মদিনের পার্টিতে গিয়েছিলেন। আরও বেশ কয়েকজন বন্ধু সেখানে উপস্থিত ছিল। তাঁরা নিজেদের মধ্যে পার্টিতে মশগুল থাকার সময় একা পেয়ে নিগৃহীতাকে ধর্ষণ করে অভিযুক্ত। তারপর থেকেই ফেরার দিল্লি এইমসের ওই চিকিৎসক৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here