উদয় ঘোষ :: সংবাদ প্রবাহ :: বর্ধমান :: জানা গিয়েছে, বর্ধমান ২ ব্লকের ২২৪৩ টি গাছ, মেমারির ৩০৯৩ টি গাছ, জামালপুর ব্লকের ৪০৬৪ টি গাছ, গলসি ১ ব্লকের ৬৪৩৪ টি গাছ, গলসি ২ ব্লকের ৪৯৭১ টি গাছ কাটা পড়বে। আউশগ্রামেও কিছু গাছ কাটা হবে বলে জানা গিয়েছে। জেলা বন দপ্তরের তত্ত্ববধানে গাছ কাটার কাজ শুরু হয়েছে।

কোথায় পরিবেশ দপ্তর !

 

 

 

পূর্ব বর্ধমান, হাওড়া, হুগলি, তিনটে জেলার মধ্যে কাজ শুরু হয়েছে। পূর্ব বর্ধমানের পালসিট থেকে ডানকুনি পর্যন্ত এই স্কীম রয়েছে। আমাদের জেলায় প্রায় চব্বিশ হাজার গাছ কাটা হবে ছয় লেন রাস্তার জন্য ।

জাতীয় পুরষ্কার প্রাপ্ত পরিবেশ প্রেমী তথা ‘গাছ মাষ্টার নামে খ্যাত’ অরুপ চৌধুরী জানিয়েছেন, জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ পরিবেশ সচেতন হিসাবেই পরিচিত। এই ধরনের পরিকল্পনা একদিনেই তারা নেয় না। এই ধরনের বড় পরিকল্পনা নেওয়ার আগে তাদের উচিত ছিল জাতীয় সড়ক বরাবর যতদূর রাস্তা সম্প্রসারণ করবেন সেই সীমানার বাইরে বছর খানেক আগে থেকেই গ্রীনকরিডোর করার প্রয়োজন ছিল।

যেহেতু তা না করে তারা জাতীয় সড়কের ধারে হাজার হাজার গাছ কাটার পরিকল্পনা নিয়েছেন তাতে যানবাহন নির্গত কার্বন মনোক্সাইড গ্যাস বেশি পরিমানে ছড়িয়ে পড়বে । কারণ, জাতীয় সড়ক ধরে প্রতিদিন হাজার হাজার গাড়ি যাতায়াত করে। তাতে প্রচুর কার্বন মনোক্সাইড গ্যাস নির্গত হয় যা রাস্তার পাশে থাকা গাছ গ্রহন করে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করে। তাই এতো গুলি গাছ কাটার ফলে বায়ুদূষণের মাত্রা বৃদ্ধি পাবে বলে জানিয়েছেন অরুপ বাবু।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here