BREAKING NEWS :: থামানো হলো কংগ্রেসের মিছিল – প্রিয়াংকা গান্ধী পুলিশ হেফাজতে !

আনন্দ মুখোপাধ্যায় :: সংবাদপ্রবাহ টিভি ডট কম :: ২৪শে ডিসেম্বর ::নয়াদিল্লি ::: বিক্ষোভরত কৃষকদের সমর্থনে রাষ্ট্রপতি ভবন অভিমুখে রাহুল গান্ধীর নেতৃত্বাধীন মিছিল আটকে দিয়েছে  পুলিশ। পরে ছোট একটি প্রতিনিধি দলকে প্রেসিডেন্ট রাম নাথ কোবিন্দের সঙ্গে সাক্ষাতের সুযোগ দেওয়া হয়। কংগ্রেসের প্রতিনিধি দল নতুন কৃষি আইন বাতিলে রাষ্ট্রপতির হস্তক্ষেপ কামনা করে একটি স্মারকলিপি দিয়েছেন। মিছিল থামানোর পর প্রিয়াংকা গান্ধী বঢ়রা সহ বেশ কয়েকজন কংগ্রেস নেতাকে আটক করে  থানায় পাঠানো হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে শিগগিরই তাদের ছেড়ে দেওয়া হবে।

বিগত প্রায় এক মাস ধরে কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে আন্দোলন করছেন  কৃষকরা। এরপরও সরকারের পক্ষ থেকে আইন বাতিলের কোনও সিদ্ধান্ত আসেনি। তারা সরকারের ওপর চাপ বাড়ানোর চেষ্টা করছেন। কৃষক বিক্ষোভে সমর্থন দিচ্ছে দেশের প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেসসহ বেশ কয়েকটি বিরোধী রাজনৈতিক দল।

বৃহস্পতিবার প্রায় দুই কোটি মানুষের স্বাক্ষর সম্বলিত স্মারকলিপি নিয়ে রাষ্ট্রপতি ভবন অভিমুখে মিছিল শুরু করে কংগ্রেস। ওই স্মারকলিপিতে বিতর্কিত কৃষি আইন বাতিলে রাষ্ট্রপতির হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়েছে।

রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সঙ্গে সাক্ষাতের পর কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী বলেন, ‘আমি প্রধানমন্ত্রীকে বলে দিতে চাই যে কৃষি আইন বাতিল হওয়ার আগ পর্যন্ত এসব কৃষক বাড়ি ফিরবে না। সরকারের উচিত পার্লামেন্টে একটি যৌথ অধিবেশন ডাকা এবং আইনগুলো প্রত্যাহার করা। বিরোধী দলগুলো কৃষক এবং শ্রমিকদের সঙ্গে আছে।’

ভারতে কোনও গণতন্ত্র নেই বলে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও সরকারকে আক্রমণ করেন রাহুল গান্ধী। তিনি দাবি করেন যারাই প্রধানমন্ত্রীর বিরোধিতা করছে তাদেরকেই সন্ত্রাসবাদী  আখ্যা দেওয়া হচ্ছে, ‘এমনকি সেটা (আরএসএস প্রধান) মোহন ভগাওয়াত হলেও’।

এর আগে রাষ্ট্রপতি ভবন অভিমুখে কংগ্রেসের মিছিল থামানোর পর রাস্তায় বসে পড়েন প্রিয়াংকা গান্ধী। সে সময় তিনি বলেন, ‘এই সরকার যে কোনও ভিন্নমতকেই সন্ত্রাসী উপাদান বলে আখ্যা দিচ্ছে। কৃষকদের প্রতি সমর্নের কথা জানাতেই আমরা এই মিছিলের কর্মসূচি নিয়েছি।’ এর কিছুক্ষণের মধ্যেই তাকে পুলিশ আটক করে  ।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nineteen − twelve =