BREAKING NEWS :: প্রজাতন্ত্র দিবসে লালকেল্লায় উড়ল বিক্ষোভকারীদের পতাকা – কে দেবে জবাব জনতাকে ?

 

আনন্দ মুখোপাধ্যায় :: সংবাদ প্রবাহ টিভি :: ২৬শে,জানুয়ারি :: নয়াদিল্লি :: আগেভাগে সতর্ক ছিল দিল্লি পুলিশ। তবু শেষরক্ষা হল না। টোটাল ইনটালিজেন্স ফেলিওর বলতে যা বোঝায় আমরা তাই দেখলাম আজ দিল্লিতে |

লালকেল্লার চূড়োয় উড়ল কৃষক সংগঠনের পতাকা। এই ঘটনার সমালোচনায় সরব হয়েছে গোটা দেশ ।

সিঙ্ঘু, গাজিপুর সীমানা থেকে ট্র্যাক্টর ব়্যালি বের করেন কৃষকরা। তারপর থেকেই পুলিশের সঙ্গে দফায়-দফায় খণ্ডযুদ্ধ বাধে বিক্ষোভকারীদের। কোথাও কাঁদানে গ্যাস ছোড়া হয়, তো কোথাও আবার লাঠি চালায় পুলিশ। পালটা কৃষকরাও লাঠি হাতে চড়াও হন। এমনকী, তাঁদের হাতে তলোয়ারও থাকতেও দেখা গিয়েছে বলে সংবাদ মাধ্যমের খবর ।

এদিকে বেলা গড়াতেই সমস্ত ব্যারিকেড ভেঙে রুট বদলে দিল্লিতে ঢুকে পড়েন কৃষকরা। দিল্লির আইটিও-র সামনে পুলিশের সঙ্গে ফের খণ্ডযুদ্ধ বাধে। অভিযোগ, পুলিশের উপর দিয়ে ট্র্যাক্টর চালিয়ে দেন কৃষকরা। পরে ব্যারিকেড ভেঙে লালকেল্লায় ঢুকে পড়েন আন্দোলনকারী কৃষকেরা ।এরপর কয়েকজন কৃষক লালকেল্লায় নিজেদের সংগঠনের পতাকা উড়িয়ে দেন।

সারাদেশ এই ঘটনায় সমালোচনা মুখর হলেও আন্দোলনকারীদের নেতা রাকেশ তিরকিত এদিন বলেন, “যাঁরা বিশৃঙ্খলা তৈরির চেষ্টা করেছেন, তাঁরা কৃষক নন। রাজনৈতিক দলের সদস্য। বিক্ষোভারীদের বদনাম করতেই এই কাজ করা হয়েছে।”

 

কিন্তু ঘটনা যাইহোক এতো করা নিরাপত্তা এতো আঁটোসাঁটো নিরাপত্তার ঘেরাটোপক বুড়োআঙ্গুল দেখিয়ে আন্দোলনকারীরা কিন্তু দেখিয়ে দিলেন খোদ দিল্লিতেই নিরাপত্তার ফাঁকফোকর বেশ বড়ো । এই ঘটনা কিন্তু আমাদের মনে করিয়ে দিলো মাত্র কয়েকদিন আগেকার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ঘটনার কথা । সেদিনও কিন্তু মার্কিন মুলুকের ভিভিআইপি এলাকা ক্যাপিটল বিল্ডিং যা নাকি খোদ রাষ্ট্রপতির বাসভবন এবং মার্কিনি সংসদ ভবন সেখানেও চলেছিল কিছু উৎশৃঙ্খল মানুষের হিংসাত্মক দাপাদাপি ।

সেই চিত্রেরই যেন পুনরাবৃত্তি হলো দিল্লির লালকেল্লায় । ভারতীয় গণতন্ত্রের ঐতিহ্য মেনে যখন একদিকে চলছে গণতন্ত্র দিবসের সমারোহ ঠিক তখনি একদল সো কল্ড আন্দোলনকারী কেমন করে লালকেল্লায় ওপরে তাদের পতাকা ভারতীয় তিরন্গাকে  ছাপিয়ে উড়িয়ে দিলো ।

Advertisenent

এর জবাব কে দেবে । কোথায় ছিল আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী আর কি করছিলো আমাদের ইন্টেলিজেন্স দপ্তর । এতদিন ধরে দিল্লির সীমান্তে বসে আন্দোলন করতে থাকা কৃষকদের মাঝে যে কিছু দেশদ্রোহী ঢুকে পড়েছে তা কেন তারা আগাম জানতে পারেননি । কি বলবেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ ? দেশের গণতন্ত্রপ্রিয় মানুষ আজ আপনার কাছে জানতে চাইছে এই দেশদ্রোহীদের আপনি কি শাস্তি দেবেন ?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

15 − thirteen =