অনিল মাথুর :: ২৪ ঘন্টা লাইভ :: ২৩শে,এপ্রিল :: নয়াদিল্লি :: করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে বেসামাল ভারত। রাজধানী দিল্লিসহ দেশটির হাসপাতালগুলোতে করোনায় আক্রান্তদের শ্বাসকষ্টের চিকিৎসায় জরুরি উপাদান অক্সিজেনের মারাত্মক সংকট দেখা দিয়েছে।

দিল্লিতে লোকালয়েই

 

গণচিতা ?

অবস্থায় কেন্দ্রীয় সরকারের জরুরি সাহায্য চেয়েছে রাজ্য সরকার। দিল্লির উপমুখ্যমন্ত্রী মনিশ সিসোদিয়া বুধবার বলেছেন, রাজধানীর বড় সরকারি হাসপাতালগুলোর অক্সিজেন মজুদ দিয়ে আট থেকে সর্বোচ্চ ২৪ ঘণ্টা পর্যন্ত সেবা কার্যক্রম চালানো যাবে। বেসরকারি হাসপাতালে মজুদের পরিমাণ মাত্র চার থেকে পাঁচ ঘণ্টার মতো। বৃহস্পতিবার সকালের মধ্যে পর্যাপ্ত সরবরাহ না পেলে একটা বড় ধরনের বিপর্যয় ঘটতে পারে।

ছবি প্রতীকি

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছেন, দেশ একটি করোনাভাইরাস ‘ঝড়ের’ কবলে পড়েছে, যা স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থাকে নাকাল করে ফেলেছে। কোভিড ১৯-এর প্রবল দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় কেন্দ্রীয় সরকার সাধ্যমতো কাজ করে যাচ্ছে। এদিকে রাজধানী দিল্লির অবস্থা অত্যন্ত সংকটজনক হয়ে উঠেছে । পরিসরের অভাবে জনবসতির মাঝেই জ্বলছে গণচিতা ।

ছবি প্রতীকি

‘মৃত্যুপুরী’ রাজধানী, জায়গা কুলোচ্ছে না শ্মশানে, লোকালয়েই জ্বলছে গণচিতা । এর আগে গুজরাত, মধ্যপ্রদেশের মতো জেলায় শ্মশানের বাইরে দেহ নিয়ে সারি সারি অ্যাম্বুল্যান্স দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গিয়েছিল। তবে দিল্লিতে পরিস্থিতি এমন পৌঁছেছে যে, শ্মশানের বাইরে লাইনেও জায়গা পাচ্ছেন না অনেকে। বাধ্য হয়ে বাড়িতেই প্রিয়জনের মৃতদেহ রেখে দিতে হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here